‘দিদি জানে আমি নির্দোষ’, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাশে পেয়ে খুশি অনুব্রত

03:46 PM Aug 15, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  রবিবার বেহালা থেকে অনুব্রতর গ্রেপ্তারি নিয়ে মুখ খুলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কার্যত তৃণমূল নেতার পাশে দাঁড়ানোর ইঙ্গিতই দিয়েছিলেন তিনি। আর দলনেত্রীর এই বার্তা পেয়েই আত্মবিশ্বাসী অনুব্রত মণ্ডল। আইনজীবীকে জানালেন, “জানতাম দিদি পাশে থাকবেন।” 

Advertisement

বর্তমানে নিজাম প্যালেসই ঠিকানা অনুব্রত মণ্ডলের। সোমবার সেখানে গিয়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করেন আইনজীবী অনির্বাণ গুহ ঠাকুরতা। বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন তাঁরা। এরপর আইনজীবী জানান, দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বার্তা অনেকটাই চাঙ্গা করেছে অনুব্রতকে। এদিন আইনজীবীর কাছে বীরভূমের ‘কেষ্ট’ দাবি করেন, তাঁকে অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি নির্দোষ। পাশাপাশি জানান, তিনি জানতেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর পাশে থাকবেন। ‘দিদি’ পাশে থাকায় খুশি অনুব্রত। 

[আরও পড়ুন: বীরভূমে দলের কাজ চলবে আগের মতোই, কেষ্টর আসন ফাঁকা রেখে সিদ্ধান্ত তৃণমূলের]

গত বৃহস্পতিবার বোলপুরের নিচুপট্টির বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে। এরপর থেকেই জোর চর্চা রাজনৈতিক মহলে। দলের তরফে অনুব্রতর বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে সেদিকেও নজর ছিল সকলের। এরই মাঝে গতকাল অর্থাৎ রবিবার ইঙ্গিতে দলের অবস্থান বুঝিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  সরাসরি প্রশ্ন তোলেন, “কী করেছিল কেষ্ট? কেন গ্রেপ্তার করা হল ওকে?”

Advertising
Advertising

মমতার অভিযোগ, অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অনুব্রতকে। এরপরই মুুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কোনওদিন ক্ষমতা বা পদ চায়নি অনুব্রত।” তিনি বলেন, “কেষ্টকে আমি অনেকবার বলেছি তুই এমএলএ হতে পারিস, এমপি হওয়ার পরামর্শও দিয়েছি। কিন্তু কোনওদিন ও রাজি হয়নি। রাজ্যসভার সাংসদ করতেও চেয়েছিলাম, তাতে রাজি হয়নি।” যা আশ্বস্ত করেছে অনুব্রতকে। 

এদিকে আজ অর্থাৎ সোমবার অনুব্রতর মঙ্গলকামনায় তাঁর বাড়িতে মহাযজ্ঞের আয়োজন করা হয়েছে। লাভপুর ও নানুরের তৃণমূল বিধায়ক এদিন অনুব্রতর বাড়িতে যান। এছাড়া বহু কর্মী-সমর্থক ও পরিবারের লোকজন রয়েছেন সেখানে।

[আরও পড়ুন: ‘কাউকে বাঁচাতে গরিব বলেই ফাঁসি’, ১৮ বছর পরও ক্ষোভে ফুঁসছেন ধনঞ্জয়ের দাদা]

Advertisement
Next