নবমবার তলবেও হাজিরা এড়িয়ে কলকাতা থেকে বোলপুরের পথে অনুব্রত, এবার কী করবে সিবিআই?

06:06 PM Aug 08, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এ যেন পুরোপুরি স্নায়ুযুদ্ধ! সিবিআই (CBI) নোটিসের পর নোটিস পাঠিয়ে যাচ্ছে আর তিনি বারবার তা এড়াচ্ছেন। ন’বার তলবের মধ্যে মাত্র একবারই তিনি সিবিআই দপ্তরে গিয়ে তদন্তের মুখোমুখি হয়েছেন। বাকি সময় তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের কোনও সুযোগ পাননি কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা। বলা হচ্ছে বীরভূমের তৃণমূল (TMC) সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের কথা। গরু পাচার কাণ্ডের তদন্তে মামলায় নবমবারের সিবিআই তলবেও গরহাজির রইলেন তিনি। কলকাতায় এলেন, নিজাম প্যালেসের অদূরে এসএসকেএম হাসপাতালে স্বাস্থ্যপরীক্ষাও করালেন।  হাসপাতালে ভরতি হতে হল না তাঁকে। কিন্তু তারপরও সিবিআই দপ্তরে না গিয়ে সোজা বোলপুরের (Bolpur) পথে রওনা হলেন। তাহলে অনুব্রত মণ্ডলকে জিজ্ঞাসাবাদের ক্ষেত্রে এবার তবে কোন পথে হাঁটবে সিবিআই? এই প্রশ্ন উঠছে। 

Advertisement

গরু পাচার (Cow smuggling) মামলার তদন্তে নিজাম প্যালেস থেকে সিবিআইয়ের তলব পেয়েই অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal) জানিয়েছিলেন, তাঁর পক্ষে কলকাতায় গিয়ে হাজিরা দেওয়া সম্ভব নয়। কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা যদি বোলপুর গিয়ে জেরা করতে চান, তাহলে তিনি অবশ্যই সহযোগিতা করবেন। কিন্তু সিবিআই তাঁকে জানায়, কলকাতার নিজাম প্যালেসে হাজিরা দিতেই হবে। 

কখনও অসুস্থতা, কখনও ভোটের কাজে ব্যস্ত থাকার দরুণ অনুব্রত দীর্ঘদিন সিবিআই দপ্তরে হাজিরা দেননি। মাঝে মাত্র একবারই তিনি আসেন নিজাম প্যালেসে। কিছুক্ষণের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি  স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য চলে যান এসএসকেএমে। সেখানে কিছুদিন ভরতি থাকার পর ছাড়া পেয়ে বোলপুরের বাড়িতে ফেরেন।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: কমনওয়েলথে প্রথমবার সোনা জয় সিন্ধুর, লক্ষ্যভেদ করে সোনালি ইতিহাস লক্ষ্য সেনেরও]

এরপর ফের তাঁকে গরু পাচার মামলায় সোমবার অর্থাৎ ৮ তারিখ ডেকে পাঠান সিবিআই তদন্তকারীরা। কিন্তু তিনি ইমেল মারফত সিবিআইয়ের কাছে আরও খানিকটা সময় চান। কারণ, সোমবারই তাঁর এসএসকেএমে চেক আপের দিন ছিল। হাসপাতালে গেলে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সময় দেওয়া সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছিলেন। প্রয়োজনে মঙ্গলবার তিনি নিজাম প্যালেসে যেতে পারেন বলেও জানান। 

সোমবার বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ চিনার পার্কের ফ্ল্যাট থেকে বের হন অনুব্রত মণ্ডল। মা উড়ালপুল ধরে সোজা এসএসকেএমে পৌঁছন তিনি। সেখানে বেশ কয়েকটি পরীক্ষানিরীক্ষার পর তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়। যদিও মনে করা হচ্ছিল, অনুব্রতকে চিকিৎসার জন্য উডবার্ন ওয়ার্ডে ভরতি করা হতে পারে। তা প্রস্তুতও রাখা হয়েছিল। কিন্তু ভরতির প্রয়োজন নেই বলেই জানিয়ে দেন চিকিৎসকরা। এরপর চিনার পার্কের বাড়ি ফিরে যান অনুব্রত। বিকেলে সেখান থেকে বেরিয়ে সোজা বোলপুরের পথে পাড়ি দেন। জানিয়ে দেন, তিনি বাড়ি ফিরছেন। অর্থাৎ এবারও তিনি নিজাম প্যালেসে গেলেন না।

[আরও পড়ুন: প্রেমিকের সঙ্গে পলাতক মা, ফের বিয়ে করতে পারেন বাবা, আতঙ্কে আত্মঘাতী ৯ বছরের বালক]

এরপর সিবিআইয়ের ইতিকর্তব্য নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। কীভাবে অনুব্রত মণ্ডলকে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা? ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এবার আরও চাপে পড়তে পারেন তৃণমূল নেতা। সরাসরি তাঁর বাড়ি গিয়ে জেরা করতে পারে সিবিআই। কিংবা তাঁর বিরুদ্ধে অন্য কোনও আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে। 

Advertisement
Next