‘আগুন নিয়ে খেলা করা ঠিক নয়’, নূপুর শর্মাকে গ্রেপ্তারির দাবিতে ফের সরব মমতা

05:19 PM Jul 04, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশে শান্তি বজায় রাখতে নূপুর শর্মাকে গ্রেপ্তার করা উচিত। একাধিকবার এ দাবি তুলেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের অনুষ্ঠানেও এই ইস্যুতে ফের সরব তিনি। সাফ বলে দিচ্ছেন, “আগুন নিয়ে খেলা করা উচিত নয়।”

Advertisement

পয়গম্বর বিতর্কে বহিষ্কৃত বিজেপি (BJP) নেত্রী নূপুর শর্মাকে গ্রেপ্তারির দাবিতে উত্তাল হয়েছে গোটা দেশ। দিল্লি, উত্তরপ্রদেশের মতোই বাংলাতেও বিক্ষোভের আগুন জ্বলেছিল। নূপুরের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন শহরে দায়ের করা হয়েছে মামলাও। কিন্তু প্রতিবারই থানার তলব এড়িয়ে গিয়েছেন তিনি। এমনকী তাঁর বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিসও জারি করেছে কলকাতা পুলিশ। তবে এখনও গ্রেপ্তার করা হয়নি তাঁকে। অথচ এর জেরে হিংসা তীব্রতর হয়েছে। নূপুর শর্মার মন্তব্যকে সমর্থন করায় সম্প্রতি রাজস্থানের উদয়পুরে এক দরজির মুণ্ডচ্ছেদ করে দেওয়া হয়। যে ঘটনাকে ঘিরে তীব্র উত্তেজনা ছড়ায়। ঘটনার তদন্ত ভার দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনআইএ-কে। প্রায় একইরকম ঘটনা ঘটে অমরাবতীতেও। লাগাতার অশান্তি সত্ত্বেও তা থামানোর চেষ্টা করছে না মোদি সরকার বলে সরব হয়েছে বিরোধীরা। এবার ফের নূপুরকে গ্রেপ্তার করার দাবি তুললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

[আরও পড়ুন: পাঞ্জাবের পর বিজয়ওয়াড়া, ফের প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় বড়সড় গলদ]

মমতা বলে দেন, “গোটা বিষয়টা আসলে বিজেপির ষড়যন্ত্র। হিংসা ছড়ানো, বিভেদ তৈরি করার মতলব। আগুন নিয়ে খেলা করা ঠিক নয়।” এরপরই সাফ জানিয়ে দেন, বিভেদের রাজনীতিতে তিনি বিশ্বাসী নন। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “আমরা (রাজনৈতিক দল) হিন্দু, মুসলিম, শিখ, খ্রিস্টান, জৈন, বৌদ্ধ- সকলের জন্য।”

Advertising
Advertising

উল্লেখ্য, পয়গম্বর বিতর্কে সুপ্রিম কোর্টের তীব্র ভর্ৎসনার মুখেও পড়তে হয়েছে নূপুর শর্মাকে। শীর্ষ আদালতের পর্যবেক্ষণ, নূপুরের (Nupur Sharma) মন্তব্যের জন্যই দেশে হিংসাত্মক পরিবেশ তৈরি হয়েছে, দেশে আগুন জ্বলছে। এমনকী উদয়পুরের নৃশংস ঘটনার নেপথ্যেও দায়ী নূপুর শর্মার উসকানিমূলক মন্তব্য। এর জন্য ক্ষমা চাইতেও দেরি করেছেন তিনি। তাঁর উচিত প্রকাশ্যে সকলের কাছে ক্ষমা চাওয়া। তবে এরপরও ঘুরিয়ে নূপুরের পাশে দাঁড়িয়েছে বিজেপি। কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কিরেণ রিজিজু (Kiren Rijiju) বলে দেন, শীর্ষ আদালত নূপুর শর্মাকে নিয়ে যা যা বলেছে, সবটাই শুধু মৌখিক পর্যবেক্ষণ। এটা কোনও লিখিত রায় নয়।

[আরও পড়ুন: দমকলের চাকরিতে বেনিয়মের অভিযোগ, ১৫০০ পদে নিয়োগে স্থগিতাদেশ কলকাতা হাই কোর্টের]

Advertisement
Next