Advertisement

ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় স্বরাষ্ট্রসচিবের কাছে রিপোর্ট তলব কলকাতা হাই কোর্টের

03:50 PM May 07, 2021 |
Advertisement
Advertisement

শুভঙ্কর বসু: রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা আর অশান্তি রুখতে কী কী পদক্ষেপ করেছে রাজ্য? কোথায় কতটা অশান্তি ছড়িয়েছে? এর বিস্তারিত তথ্য চেয়ে স্বরাষ্ট্রসচিবের কাছে রিপোর্ট তলব করল কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court)। আগামী সোমবারের মধ্যে হলফনামা আকারে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হল।

Advertisement

নির্বাচনের (WB Assembly Election 2021) পরই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে হিংসার খবর উঠে এসেছে। প্রাণ গিয়েছে অন্ত ১৬ জনের। অশান্তির এই পরিবেশে রাজ্য সরকার ও পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন আইনজীবী অনিন্দ্য সুন্দর দাস। আবেদনে তিনি দাবি করেছিলেন, নির্বাচন পরবর্তী হিংসা বন্ধ হোক। যাঁরা হিংসাত্মক ঘটনার শিকার হয়েছেন, তাঁদের ক্ষতিপূরণ দিক রাজ্য। প্রয়োজনে সেনা নামিয়ে শান্তি ফেরানো হোক বাংলায়। রাজ্য এনিয়ে কড়া পদক্ষেপ করছে কিনা, জানতে চাওয়া হয়েছিল আবেদনে। পাশাপাশি মামলাকারী উল্লেখ করেছিলেন, বাংলা ছাড়াও চার রাজ্য এবং একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভোট হয়েছে। কিন্তু কোথাও ফল ঘোষণার পর এমন হিংসার পরিবেশ তৈরি হয়নি। বাংলাতেও শান্তি ফেরানোর আবেদন জানান তিনি। সেই মামলার শুনানিতেই আজ স্বরাষ্ট্রসচিবের হলফনামা তলব করল কলকাতা হাই কোর্ট।

[আরও পড়ুন: বাংলায় চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন বাড়তি অক্সিজেন, ফের প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর]

এদিন প্রথমে সকাল ১১টায় হাই কোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দালের ডিভিশন বেঞ্চে মামলাটি ওঠে। তবে মামলার গুরুত্ব বুঝে আরও বড় বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর বেলা ২টোয় ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চে মামলাটি পেশ করা হয়। সেখানেই রাজ্যের কাছে একাধিক প্রশ্নের উত্তর চাওয়া হয়। রাজ্যের তরফে বলা হয়, ইতিমধ্যেই হিংসার ঘটনায় বেশ কিছু এফআইআর করা হয়েছে। কেন এমন ঘটনা ঘটছে, তার তদন্তও চলছে। নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণও দেওয়া হয়েছে। এরপরই হিংসা ঠেকাতে রাজ্য কী পদক্ষেপ করেছে, তা নিয়ে স্বরাষ্ট্রসচিবের হলফনামা তলব করা হয়। বলা হয়, সোমবারের মধ্যে হলফনামা জমা দিতে হবে।

উল্লেখ্য, এই প্রথম রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে বড় বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্ত নিল কলকাতা হাই কোর্ট। সাধারণত মামলার গুরুত্ব বুঝে বড় কোনও ঘটনার প্রেক্ষিতেই বেশ কয়েকজন বিচারপতি নিয়ে বেঞ্চ গঠন হয়। এবার নির্বাচনের পর বাংলা যে উত্তপ্ত, তা কলকাতা হাই কোর্টের সিদ্ধান্তে অনেকটাই স্পষ্ট।

[আরও পড়ুন: ফিরল রেড রোডের স্মৃতি, কলকাতায় গাড়ির বেপরোয়া গতির বলি ১]

Advertisement
Next