‘ঐতিহাসিক দিন, বিরোধীরা এলে খুশি হতাম,’স্মারক ভবন উদ্বোধনের পর মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর

04:16 PM Nov 25, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংবিধান দিবসের প্রাক্কালে বিধানসভা চত্বরে নতুন ভবনের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তবে এদিনের এই অনুষ্ঠানও এড়ালেন বিরোধী দলনেতা ও বিজেপির বিধায়করা। উদ্বোধনের পর মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “বিরোধীরা এলে খুশি হতাম।”

Advertisement

শুক্রবার বিধানসভায় শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) দাবি করেন, রাজ্যের কোনও অনুষ্ঠানে নিয়ম মেনে বিরোধীদের আমন্ত্রণ জানানো হয় না। এদিকে পালটা মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বিরোধীদের ডাকা সত্ত্বেও কোনও অনুষ্ঠানে তাঁরা যোগ দেন না। এরপরই স্মারক ভবন উদ্বোধনে বিরোধীদের যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী। সেই সময় বিরোধী দলনেতা জানান, অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পত্রে তাঁর নাম নেই। ফলত তিনি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন না সাফ জানান শুভেন্দু অধিকারী। এর কিছুক্ষণ পর শুভেন্দু অধিকারীকে বিধানসভায় নিজের ঘরে ডাকেন মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: আলিপুরদুয়ারে ভল্লুকের তাণ্ডব, প্রায় সাড়ে তিনঘণ্টার চেষ্টায় কাবু করল বনকর্মীরা]

বেলা তিনটে নাগাদ বিধানসভা চত্বরে নতুন ভবনটির উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেও উঠে আসে বিরোধী প্রসঙ্গ। বলেন, “বিরোধীরা এল না। এলে খুব খুশি হতাম। এটা একটা ঐতিহাসিক মুহূর্ত।” প্রসঙ্গত, প্রায় ২৫ কোটি টাকা খরচ করে বিধানসভা চত্বরে তৈরি করা হয়েছে একটি ভবন। এই ভবনে রয়েছে দুটি অডিটোরিয়াম। বিধানসভার বৈঠকগুলির ক্ষেত্রে অনেক সময়ই সবার একসঙ্গে জায়গা হয় না। নতুন এই ভবনটি তৈরি হওয়ায় সেই সমস্যা এড়ানো যাবে। এছাড়া বিধানসভার যে কোনও অনুষ্ঠান ওই অডিটোরিয়ামে করা যাবে।

Advertising
Advertising

এদিকে এদিন বিধানসভায় শুভেন্দু অধিকারীকে নিজের ঘরে ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। অগ্নিমিত্রা পাল, অশোক লাহিড়ী ও মনোজ টিগ্গাকে নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন বিরোধী দলনেতা। কিছুক্ষণ কথা বার্তার পর বেরিয়ে আসেন শুভেন্দু। এই সাক্ষাৎ নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

[আরও পড়ুন: রেল ব্রিজ রক্ষণাবেক্ষণের কাজ, সপ্তাহান্তে শিয়ালদহ মেন শাখায় বাতিল বেশ কিছু লোকাল]

Advertisement
Next