ইদের সকালে আন্দোলনরত চাকরিপ্রার্থীদের ফোন মুখ্যমন্ত্রীর, প্রতিশ্রুতি দিলেন নিয়োগের

05:40 PM May 03, 2022 |
Advertisement

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: ইদের সকালেও নিয়োগের দাবিতে আন্দোলন জারি চাকরিপ্রার্থীদের। মঙ্গলবার সকালে ফোনে তাঁদের সঙ্গে কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। আশ্বাস দিলেন নিয়োগের। মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাস পেয়ে খুশি চাকরিপ্রার্থীরা। সমস্যার দ্রুত সমাধান হবে বলেই আশা তাঁদের।

Advertisement

মেধা তালিকায় নাম থাকা সত্ত্বেও নিয়োগ হয়নি। এই অভিযোগ তুলে নিয়োগের দাবিতে ধর্মতলায় গান্ধীমূর্তি ও মাতঙ্গিনী হাজরার মূর্তির পাদদেশে আন্দোলনে শামিল হয়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। ইদের সকালে জারি বিক্ষোভ, আন্দোলন। মঙ্গলবার সকালে ডিসি সাউথ আকাশ মাঘারিয়ার ফোন থেকে আন্দোলনরত চাকরি প্রার্থীদের সঙ্গে কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী। আন্দোলনকারীদের দাবি শুনলেন তিনি। এরপর দ্রুত তাঁদের নিয়োগের আশ্বাস দিয়েছেন বলে খবর। এ বিষয়ে এক আন্দোলনকারী বলেন, “হঠাৎ পুলিশ এসে বললেন, মুখ্যমন্ত্রী আমাদের সঙ্গে কথা বলতে চান। উনি সহানুভূতির সঙ্গে বিষয়টি দেখবেন বলেছেন। উনি বিষয়টা মাথায় রাখছেন, শিক্ষা দপ্তরের সঙ্গে কথা বলবেন।” মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাসবাণীতে স্বস্তিতে চাকরিপ্রার্থীরা। তবে নিয়োগপত্র হাতে না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন জারি থাকবে বলেই জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

[আরও পড়ুন: বিভাজনের রাজনীতি চলবে না, রেড রোডে ইদের নমাজ পাঠের মঞ্চ থেকে কেন্দ্রকে তোপ মমতার]

২০১৬ সালের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর এখনও চাকরির নিয়োগপত্র পাননি। নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণিতে শিক্ষক হিসেবে যোগ্যতা প্রমাণের পরও নিয়োগ হয়নি ২৫০০ হাজার প্রার্থীর। দ্রুত নিয়োগের দাবিতে একাধিকবার পথে নেমেছেন তাঁরা। শিক্ষামন্ত্রীর বাড়ির সামনে স্মারকলিপি দিতে গিয়েছেন একাধিকবার। পুলিশের বাধার মুখেও পড়েছেন। আটকও করা হয়েছে। একাধিকবার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। দীর্ঘদিন ধরে চাকরির দাবিতে অবস্থান বিক্ষোভ করছেন চাকরিপ্রার্থীরা। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী পাশে থাকার আশ্বাস দেওয়ায় খানিকটা স্বস্তিতে তাঁরা। এই ঘটনার জল গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। 

Advertising
Advertising

উল্লেখ্য, রমজান শেষে আজ অর্থাৎ মঙ্গলবার খুশির ইদ। এদিন সকালে রেড রোড থেকে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের উদ্দেশ্যে সম্প্রীতির বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখান থেকে বেকবাগানে যান তিনি। গিয়েছিলেন রিজওয়ানুরের বাড়িতেও। এরপরই ডিসি সাউথ আকাশ মাঘারিয়ার ফোন থেকে কথা বলেন আন্দোলনরত চাকরিপ্রার্থীদের সঙ্গে।   

[আরও পড়ুন: খাস কলকাতায় নাটকীয় চুরি! ছেলের বাইকের বায়না মেটাতে আড়াই লাখ হাতালেন বাবা, তারপর…]

Advertisement
Next