‘পায়ে পা দিয়ে ঝগড়ার তালে সিপিএম’, কমলেশ্বরদের গ্রেপ্তারি নিয়ে বললেন কুণাল, পালটা পরিচালকের

04:39 PM Oct 04, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভরা পুজোর মধ্যেও বাম নেতাদের গ্রেপ্তারি নিয়ে রীতিমতো সরগরম রাজ্য রাজনীতি। রাজনীতির গণ্ডির বাইরে থাকা অনেকে পরিচালক কমলেশ্বরের গ্রেপ্তারি নিয়ে সরব হচ্ছেন। তাই তড়িঘড়ি আসরে নামতে হল তৃণমূলকে। দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh) সাফ বলে দিলেন, সিপিএম নাটক করছে। পায়ে পা দিয়ে ঝগড়া করার চেষ্টা করছে।

Advertisement

সমস্যার সূত্রপাত সিপিএমের (CPIM) স্টলে দুষ্কৃতী হামলা নিয়ে। পুজোর মাঝে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের মতোই রাসবিহারী প্রতাপাদিত্য রোডে বামেদের তরফে বুক স্টল খোলা হয়েছিল। অভিযোগ, সপ্তমীর রাতে সেই স্টলে হামলা চালায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। সেই হামলার ঘটনার প্রতিবাদে অষ্টমীর বিকেলে বামেদের তরফে রাসবিহারী অ্যাভিনিউ ও প্রতাপাদিত্য রোডের সংযোগস্থলে জমায়েত ও সভার আয়োজন করা হয়েছিল। সেই মতো সেখানে হাজির হন সিপিআইএম জেলা সম্পাদক কল্লোল মজুমদার, দলের নেতা গৌতম গঙ্গোপাধ্যায়, বিশিষ্ট চিত্র পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়-সহ (Kamaleshwar Mukherjee ) অন্যান্যরা। কর্মসূচি শুরুর আগেই বাধা দেয় পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশের গাড়িতে তোলা হয় পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়, বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য, কল্লোল মজুমদার, গৌতম গঙ্গোপাধ্যায়-সহ মোট ৯ জনকে।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ফ্রেঞ্চ ফ্রাইয়ের সঙ্গে ভ্যানিলা আইসক্রিম! বিচিত্র রেসিপি চেখে দেখলেন তরুণী! তারপর… ]

কমলেশ্বরদের এই গ্রেপ্তারি নিয়ে সরব হন টলিউডের বিশিষ্টজনেরা। পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় থেকে শুরু করে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, অনীক দত্তরা সরব হন প্রশাসনের বিরুদ্ধে। সৃজিত প্রশ্ন তোলেন,”বইকে এত ভয় কেন?” যার জবাব এদিন দিয়েছেন কুণাল ঘোষ। তিনি টুইটে বলেন,”বই নিয়ে মতবিরোধ কেন হবে? পুজোর ভিড়ে রাজনৈতিক প্ররোচনার প্রচার নিয়ে সমস্যা। পুজোয় তৃণমূলেরও স্টল আছে। আসলে সিপিএম (CPIM) পায়ে পা দিয়ে ঝগড়া করার তালে।” এরপরই তিনি প্রশ্ন তোলেন, যে সিপিএম পুজো মানে না, তারা পুজোর দিন স্টল কেন দিল? ওরা রবিবার করে স্টল করুক। বই পড়া, না পড়া নিয়ে কোনও ইস্যু হয়নি। নাটক করল ওরা।” পরে সাংবাদিক বৈঠকে কুণাল বলেন,”সিপিএমের স্টলে হামলার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই। অথচ সিপিএমের স্টল থেকে তৃণমূলের নামে কুৎসা করা হচ্ছিল। স্থানীয় কমিটির অনুরোধে ওই স্টল বন্ধ করা হয়।”

[আরও পড়ুন: অবৈধভাবে সমুদ্র পেরিয়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে বিপত্তি, ডুবল রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার]

কুণালের এই প্রশ্নেরও জবাব দিয়েছেন কমলেশ্বর। কুণালের নাটক মন্তব্যের প্রেক্ষিতে তাঁর বক্তব্য,”কুণাল ঘোষের জন্মের আগে থেকে পুজোয় মার্কসীয় সাহিত্যের স্টল দেওয়া হয়। উনি হয়তো এবার প্রথম দেখলেন। তাছাড়া এখানে শুধু মার্কসীয় বই থাকে না। শঙ্খ ঘোষ, শক্তি চট্টোপাধ্যায়দের বইও থাকে। এটা বাংলার পুজোর সঙ্গে জড়িত।”

Advertisement
Next