মুখ্যমন্ত্রীর পুরস্কারপ্রাপ্তি নিয়ে অশালীন পোস্ট, ইউটিউবার রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে FIR

09:24 PM May 12, 2022 |
Advertisement

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: প্রশাসন সামলেও সাহিত্য জগতে বড়সড় অবদানের জন্য এ বছর বাংলা অ্যাকাডেমির বিশেষ পুরস্কার পেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। তাঁর সেই পুরস্কারপ্রাপ্তি নিয়ে সাংস্কৃতিক মহলের একাংশের প্রতিক্রিয়া কার্যত নেতিবাচক। এবার মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে অশালীন ভাষায় সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার অভিযোগে ইউটিউবার (YouTuber) রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হল পাটুলি থানা ও লালবাজারের সাইবার ক্রাইম সেলে। যাঁরা অভিযোগ দায়ের করেছেন, তাঁরা তৃণমূল কর্মী বলেই পরিচিত।

Advertisement

গত সোমবার রাজ্য সরকার আয়োজিত ‘কবি প্রণাম’ অনুষ্ঠানে প্রবর্তিত নতুন বিশেষ পুরস্কার দেওয়া হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। ওই দিন শিক্ষামন্ত্রী তথা বাংলা অ্যাকাডেমির চেয়ারম্যান ব্রাত্য বসু (Bratya Basu) জানান, এবারই প্রবর্তিত এই বিশেষ পুরস্কার দেওয়া হবে তিন বছর অন্তর। এই পুরস্কার পাবেন তাঁরা, যাঁরা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করার পরেও নিরলসভাবে সাহিত্য সাধনা করে চলেছেন। প্রথম বছর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘কবিতা বিতান’ কাব্যগ্রন্থকে স্মরণে রেখে এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে তাঁকে। ওইদিন মুখ্যমন্ত্রীর হয়ে পুরস্কার গ্রহণ করেন ব্রাত্য বসু। মুখ্যমন্ত্রীর অ্যাকাডেমি পুরস্কারের প্রতিবাদে স্মারক সম্মান ফেরান অনেকেই। ২০১৯ সালে পাওয়া অন্নদাশংকর স্মারক ফেরান লেখিকা এবং গবেষক রত্না রশিদ বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০০৯ সালে বাংলা অ্যাকাডেমি পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। সাহিত্য অ্যাকাডেমির বাংলা উপদেষ্টা পরিষদ থেকে ইস্তফা দেন অনাদিরঞ্জন বিশ্বাসও।

[আরও পড়ুন: ডাক্তার হয়ে দৃষ্টিহীন বাবার চিকিৎসা করতে চাই, ছাত্রীর কথা শুনে আবেগে গলা বুজে এল মোদির]

এ নিয়ে সাহিত্য মহলে অনেক সমালোচনা শুরু হয়। বুধবার ব্রাত্য বসু তার পালটা দিয়ে বলেন, “বাজপেয়ীর কবিতা সম্মানিত হলে বিতর্ক হয় না তো। মমতাকে নিয়ে এত প্রশ্ন কীসের? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমাজে অনেক অবদান রয়েছে। রাজ্যের শ্রেষ্ঠ সাহিত্যিকদের নিয়ে তৈরি জুরি বোর্ডই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পুরস্কৃত করেছেন রাজনীতিবিদদেরও সাহিত্য চেতনা থাকতেই পারে। কবিতার মান নিয়ে কথা বলতেই পারেন। কবিতার মান আপেক্ষিক। যাদের ইচ্ছা বিতর্ক করার তাঁরা করবেন। আপনার কী ভাল লাগল, তা আমার ভাল নাও লাগতেই পারে।”

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: বউদির টানে দাদাকে খুন! ময়নার যুবক খুনে নয়া তথ্য, রাজনীতি করতে গিয়ে মুখ পুড়ল বিজেপির]

এদিকে, ইউটিউবার রোদ্দুর রায় লাগাতার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই পুরস্কারপ্রাপ্তি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) কুরুচিকর ভাষায় আক্রমণাত্মক পোস্ট করেছেন। তাই মুখ্যমন্ত্রীর সম্মানহানির দায়ে তাঁর বিরুদ্ধে পাটুলি থানায় এফআইআর (FIR) দায়ের করেছেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্য অরিত্র সাহা। অন্যদিকে, বিজয় বন্দ্যোপাধ্যায় নামে আরেক তৃণমূল কর্মী লালবাজার সাইবার ক্রাইমে রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। জোড়া অভিযোগ নিয়ে অবশ্য ইউটিউবারের কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও মেলেনি।

Advertisement
Next