Partha Chatterjee: ফের খারিজ জামিনের আবেদন, এবার পুজোয় জেলেই থাকতে হবে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে

07:22 PM Sep 21, 2022 |
Advertisement

অর্ণব আইচ: ফের খারিজ জামিনের আবেদন। আবারও ১৪ দিনের জেল হেফাজতে পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)। পুজোয় জেলেই থাকতে হবে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীকে। একইভাবে আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত প্রেসিডেন্সি জেলেই থাকতে হবে কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়, এসপি সিনহা এবং অশোক সাহাকেও। 

Advertisement

ইডি, জেলের পর ৪ দিনের জন্য সিবিআই (CBI) হেফাজতের বুধবারই ছিল শেষদিন। এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়কে আলিপুর বিশেষ সিবিআই আদালতে তোলা হয়। মূলত শারীরিক অসুস্থতা-সহ একাধিক কারণ দেখিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী জামিনের আবেদন জানান। তিনি আদালতে বলেন, “৫দিন ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করে তেমন কোনও উল্লেখযোগ্য তথ্য পাওয়া যায়নি। উনি চুপ করে আছেন। কারণ, চুপ করে থাকারও অধিকার রয়েছে আমার মক্কেলের। তদন্তকারীদের সঙ্গে যথেষ্ট সহযোগিতা করা হচ্ছে। ওনাকে জামিন দেওয়া হোক। জেল থেকে মুক্তি পেলেও উনি প্রমাণ নষ্ট করতে পারবেন না। ওনার কোনও ক্ষমতা নেই। একজন সাধারণ মানুষ। আদালতকে ভুল পথে চালনা করছে সিবিআই।”

[আরও পড়ুন: রাজনৈতিক স্বার্থে ইতিহাস ‘বিকৃতি’র অভিযোগ, নাম না করে ফের কেন্দ্রকে খোঁচা মুখ্যমন্ত্রীর]

তবে শুরু থেকেই তার বিরোধিতা করেন সিবিআইয়ের আইনজীবী। তাঁর দাবি, তদন্তের স্বার্থে আরও নানা তথ্য হাতে আসার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তাই পার্থ চট্টোপাধ্যায়, কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়, এসপি সিনহা এবং অশোক সাহাদের জেল হেফাজত দেওয়া হোক। জেলে গিয়ে জেরার অনুমতির আবেদনও জানানো হয়। এছাড়া দুর্নীতি দমন আইনের পাশাপাশি ভারতীয় দণ্ডবিধি ৪৬৭ (জালিয়াতি) ধারাও যোগ করার আরজি জানানো হয়। প্রভাবশালী তত্ত্বের কথা সওয়াল জবাবের সময় আরও একবার উল্লেখ করেন সিবিআইয়ের আইনজীবী। কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়ের আইনজীবীও জামিনের আরজি জানান। তিনি জানান, “উনি (কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়) মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি ছিলেন। এসএসসি’র কেউ ছিলেন না। সই স্ক্যান করা হয়েছে। এসএসসি রেকোমেন্ড করত। যা পাঠাত সেটাই করা হত। অ্যাপয়নমেন্ট লেটারগুলি ভুয়ো নয়। উনি কোনও বৈঠকে ছিলেন না। ষড়যন্ত্রে ছিলেন না। তাঁর বাড়ি থেকেও কিছুই পাওয়া যায়নি।”

Advertising
Advertising

উল্লেখ্য, গত জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে এসএসসি দুর্নীতি কাণ্ডে ইডি’র হাতে গ্রেপ্তার হন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ‘ঘনিষ্ঠ’ অর্পিতা মুখোপাধ্যায় (Arpita Mukherjee)। প্রথম কয়েকদিন ইডি হেফাজতে ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী। এরপর প্রেসিডেন্সি জেলই ঠিকানা হয় তাঁর। সেখানে জেল হেফাজতে ছিলেন তিনি। এরপর সিবিআই হেফাজতে নিজাম প্যালেসে ৪ দিন ছিলেন পার্থ। তবে এবার পুজোয় জেলেই থাকতে হবে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে।

[আরও পড়ুন: ত্রৈমাসিকের বদলে এবার মাসে মাসে বিদ্যুতের বিল পাঠাবে WBSEDCL! নয়া ভাবনা রাজ্যের]

Advertisement
Next