রাজ্যের সহযোগিতায় মিউজিয়াম গড়বে নৌসেনা, থাকবে যুদ্ধজাহাজ ও বিমানের অংশ

02:02 PM Dec 03, 2022 |
Advertisement

অর্ণব আইচ: রাজ্য সরকারের সহযোগিতায় এবার মিউজিয়াম তৈরির উদ্যোগ নিচ্ছে নৌসেনা (Indian Navy Museum)। নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ও নিজস্ব বিমানের বিভিন্ন অংশ প্রদর্শিত হবে ওই মিউজিয়ামে। এদিকে, গঙ্গার পাড়ের মাটি খুঁড়ে নৌসেনা উদ্ধার করেছে ব্রিটিশ আমলের চারটি কামান। এখনও একটি রয়ে গিয়েছে মাটির তলায়। এ ছাড়াও পুরনো দুটি সাবমেরিনের টর্পেডো আনা হয়েছে।

Advertisement

জানা গিয়েছে, নিউটাউনে (New Town) রাজ্য সরকারের উদ্যোগে নৌবাহিনীর বিমানের প্রদর্শন ইতিমধ্যেই অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়েছে। আগে এটি শুধু দেখা যেত ভাইজাগে। এখন নিউটাউনে এসেই বিমানের ভিতরে প্রবেশ করে তার যাবতীয় যন্ত্রাংশ ও বিমান চালানোর পদ্ধতি দেখতে পারছেন আমজনতা। এই সাফল্যের পর এবার নিউ টাউনে মিউজিয়াম তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে নৌসেনা।

[আরও পড়ুন: ট্রেনে হারাল বোনের বিয়ের গয়না, অসহায় দাদার মুখে হাসি ফোটাল রেল পুলিশ]

প্রাথমিকভাবে রাজ্য সরকারের সঙ্গে কথা হয়েছে রাজ্যের নৌসেনা কর্তাদের। জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকার মিউজিয়ামের বাড়ি তৈরি করে দেবে। কত তলা বাড়ি হবে এবং ক’টি ঘরে প্রদর্শনীর বস্তুগুলি রাখা হবে, তা নিয়েও চলছে উভয়পক্ষের আলোচনা। নৌসেনার আধিকারিকদের মতে, কলকাতার বিভিন্ন জেলার কিশোর-কিশোরী ও তরুণ-তরুণীরা এই মিউজিয়াম দেখার পর নৌবাহিনীতে যোগ দিতে উৎসাহ পাবে। জানা গিয়েছে, কলকাতা বন্দরের কাছ থেকে অতিরিক্ত কিছুটা জমি নৌসেনা পায়। সেখানেই পরিষ্কার ও খোঁড়াখুঁড়ি করতে গিয়ে দেখা যায়, মাটির তলায় রয়েছে কামানগুলি। চারটি কামান তোলা হয়।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ছোট্ট বিরতির পর ফের স্বমেজাজে শীত, মরশুমের শীতলতম দিনের সাক্ষী কলকাতা]

কামানগুলি পরীক্ষায় প্রাথমিকভাবে আধিকারিকদের ধারণা, সেগুলি প্রথম বিশ্বযুদ্ধ অথবা তারও আগে নিয়ে আসা হয়েছিল কলকাতায়। যদিও ব্রিটিশরা কামানগুলি যুদ্ধের কাজে লাগিয়েছিল কি না, সেটা এখনও জানা যায়নি। তবে কোনও কারণে এগুলি জাহাজ থেকে নামানো অথবা ব্যবহারের পর গঙ্গার ধারে রাখা হয়। এর পর পলিমাটিতে ডুবে যায় কামানগুলি। চারটি কামান উদ্ধারের পর দু’টি কলকাতার নৌসেনা ঘাঁটি আইএনএস নেতাজি সুভাষ-এর নতুন ভবনে মূল দরজার সামনে রাখা হয়েছে। বাকি দু’টি রাখা হয়েছে নির্মীয়মাণ ভবনের লাগোয়া জায়গায়। এছাড়াও বাকি কামানটি মাটি খুঁড়ে তোলার চেষ্টা হবে।

Advertisement
Next