Abhishek Banerjee: ‘পঞ্চায়েত ভোটে কোনও দাদাগিরি চলবে না’, সাংগঠনিক বৈঠকে কড়া বার্তা অভিষেকের

06:37 PM Aug 01, 2022 |
Advertisement

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: ২০২৪-এর লোকসভার আগে তৃণমূলের পাখির চোখ পঞ্চায়েত ভোট। কিন্তু সেই ভোটে জিততে কোনওরকম দাদাগিরি চলবে না। সোমবার দলের সাংগঠনিক বৈঠক থেকে কড়া বার্তা তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee)। এদিন ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসে উত্তরের তিন জেলা জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিংয়ের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন তিনি। সেখান থেকেই পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে দলীয় কর্মীদের কড়া বার্তা দেন।

Advertisement

তৃণমূল (TMC) সূত্রে খবর, এদিনের বৈঠকে দলের নেতা-কর্মীদের অভিষেকের স্পষ্ট বার্তা,”পঞ্চায়েত ভোটে কোনও দাদাগিরি চলবে না। থানায় গিয়ে ব্যক্তিগত ক্ষমতার দেখানো, প্রশাসনিক কাজেও ব্যক্তিগত ক্ষমতা দেখানো চলবে না।” উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে ভুড়ি ভুড়ি অভিযোগ আনে বিরোধীরা। রাজনৈতিক মহল বলে, পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূলের কিছু নেতার ঔদ্ধত্যর প্রভাব পড়েছিল উনিশের লোকসভা ভোটেও। বিশেষ করে উত্তরের জেলাগুলিতে সাফ গিয়েছিল ঘাসফুল শিবির। এবার সেই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি রুখতে মরিয়া ঘাসফুল শিবির। তাই সেই নির্বাচন নিয়ে দলের নেতা-কর্মীদের আগেভাগেই সতর্ক করে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) সেনাপতি।

[আরও পড়ুন: ভাত-খাসির মাংসের আবদার পার্থর, অর্পিতা চাইছেন ড্রাই ফ্রুটস, ইডি হেফাজতে কী খাচ্ছেন দু’জনে?]

একাধিক জনসভা থেকে জনসংযোগে জোর দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন অভিষেক। এদিনের বৈঠক থেকেও সেই কথা মনে করিয়ে দেন তিনি। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বলেন, ” সভার ভিড় শেষ কথা নয়, ভোট যেন ভোট বাক্সে আসে। জনসংযোগ করুন। বুথে-বুথে যান। কাল থেকেই রাস্তায় নামুন। মানুষের কাছে যান। ব্যক্তিগত ভিড় নয় দলের ভিড় দরকার।”

Advertising
Advertising

পঞ্চায়েত ভোটের আগে ঢেলে সাজছে তৃণমূলের সংগঠন। ইতিমধ্যে দক্ষিণবঙ্গের জেলা সংগঠনে ঢালাও রদবদল করছে তৃণমূল। এবার পঞ্চায়েত ভোটকে সামনে রেখে উত্তরের সাংগঠনিক বৈঠক সারলেন অভিষেক। প্রথম দফায় উপস্থিত ছিলেন জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিংয়ের নেতৃত্ব। মূলত ব্লকস্তরের নতুন কমিটি তৈরির আগে জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে নিলেন অভিষেক। ব্লক কমিটির দায়িত্ব কাদের দেওয়া হতে পারে, সে সম্পর্কে জেলার নেতাদের মতামত চেয়েছিন তিনি। তবে এই নামের তালিকা তৈরির ক্ষেত্রে সম্বন্বয় রাখার বার্তাও দিয়েছেন অভিষেক।

[আরও পড়ুন: ভাত-খাসির মাংসের আবদার পার্থর, অর্পিতা চাইছেন ড্রাই ফ্রুটস, ইডি হেফাজতে কী খাচ্ছেন দু’জনে?]

ইতিমধ্যে আগস্ট মাসের শ্রমিক ক্যালেন্ডার তৈরি করেছে জলপাইগুড়ি জেলা নেতৃত্ব। ৭৮টা চা বাগানে ৭৮ টা প্রস্তুতি বৈঠক, সভা হবে। ৪৮ ঘন্টা পর থেকে সেই সভা শুরু। ১০ সেপ্টেম্বর রয়েছে বড় সভা। সেখানে যেতে পারেন অভিষেকও। সূত্রের খবর, সেপ্টেম্বর মাসে উত্তরের জেলাগুলিতে একাধিক সভা করতে পারেন অভিষেক। মূলক বসতি, শ্রমিক অধ্যুষিত এলাকাগুলিতে হবে সভা। সেখানকার নেতাদের রিপোর্ট নিয়ে তৈরি থাকতে বলেছেন তিনি। 

Advertisement
Next