জনপ্রতিনিধিদের সম্পত্তি বৃদ্ধি মামলা: ইডিকে যুক্ত করার নির্দেশে আপত্তি, রিভিউ পিটিশন ৩ মন্ত্রীর

12:28 PM Aug 18, 2022 |
Advertisement

গোবিন্দ রায়: জনপ্রতিনিধিদের যাবতীয় আবেদন, মামলা শোনার জন্য রয়েছে লোকায়ুক্ত। তাই হাই কোর্টের মামলায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে যোগ করার প্রয়োজন নেই। নেতা-মন্ত্রীদের অস্বাভাবিক সম্পত্তি বৃদ্ধির মামলায় কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta HC) প্রধান বিচারপতির নির্দেশ পুনর্বিবেচনার আরজি জানিয়ে রিভিউ পিটিশন দায়ের করলেন রাজ্যের তিন মন্ত্রী। দ্রুত শুনানির আবেদনও জানানো হয়েছে। মামলাকারীদের লিখিত আবেদনের নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

খুব কম সময়ের মধ্যে রাজ্যের অন্তত ১৯ জন জনপ্রতিনিধির সম্পত্তি বেড়েছে কয়েকগুণ। হাই কোর্টে দায়ের করা মামলায় ১৯ জনের তালিকা জমা পড়ে আদালতে। তাতে রয়েছেন ফিরহাদ হাকিম, অরূপ রায়, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক এমনকী অমিত মিত্রর মতো মন্ত্রীরাও। সম্পত্তি অর্থাৎ আর্থিক বিষয়ে মামলা বলে গত ৮ আগস্ট ইডিকে যুক্ত করার নির্দেশ দেয় উচ্চ আদালত।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পডুন: ‘পড়ুয়াদের কাছে জনপ্রিয় সুকন্যা’, TET বিতর্কের মাঝেই দাবি বোলপুরের প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষকের ]

বৃহস্পতিবার এই সম্পত্তি বৃদ্ধি সংক্রান্ত মামলা ইডিকে পক্ষ বা পার্টি করা নিয়ে হাই কোর্টের নির্দেশকে পুনর্বিবেচনার আরজি জানান ৩ মন্ত্রী – ফিরহাদ হাকিম, অরূপ রায়, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এই মামলার দ্রুত শুনানির আবেদনের পাশাপাশি তাঁদের বক্তব্য, যেহেতু রাজ্যে জনপ্রতিনিধিদের বিষয়ে আবেদন শোনার জন্য লোকায়ুক্ত রয়েছে, তাই হাই কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী মামলায় ইডিকে যুক্ত করার এক্তিয়ার নেই। তাই প্রধান বিচারপতির আগের নির্দেশ পুনর্বিবেচনার আরজি জানাচ্ছেন তাঁরা। তা গ্রহণ করে প্রধান বিচারপতি তিন মন্ত্রীকে লিখিত বক্তব্য জানানোর নির্দেশ দেন। তারপর প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে তা বিবেচনা হবে। 

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

[আরও পডুন: সাতসকালে কলকাতার উদ্দেশে রওনা অনুব্রতকন্যার, হাই কোর্টে হাজিরা দেবেন?]

বিপ্লব কুমার চৌধুরী ও অনিন্দ্য সুন্দর দাস নামে দুই ব্যক্তির দায়ের করা মামলার মূল বিষয় ছিল, ২০১১ সাল থেকে শাসক দলের নেতা-মন্ত্রীদের সম্পত্তির হিসেবনিকেশ করে দেখা গিয়েছে, একেকজনের সম্পত্তির (Assets) পরিমাণ বেড়েছে হাজার গুণ পর্যন্ত। জনপ্রতিনিধিরা নির্বাচনী হলফনামায় সম্পত্তির যে পরিমাণ দেখানো হয়েছিল, পরবর্তী ৫ বছরের তা প্রচুর পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। কীভাবে এই বৃদ্ধি? এই প্রশ্ন তুলে ২০১৭ সালে হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়। আবেদনে নাম রয়েছে ফিরহাদ হাকিম, অরূপ রায়, মদন মিত্র, অমিত মিত্র, অর্জুন সিং-সহ একাধিক হেভিওয়েটের। সেই মামলায় ইডিকে পার্টি করার নির্দেশের বিরোধিতাই করলেন ৩ মন্ত্রী।

Advertisement
Next