Advertisement

ব্রিটেনের নয়া করোনা ভাইরাস দ্রুত সংক্রমণ ছড়াতে পারে শিশুদের মধ্যে! আশঙ্কা গবেষকদের

06:54 PM Dec 24, 2020 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সবে মাত্র করোনার (Coronavirus) অন্ধকার সুড়ঙ্গ থেকে বেরিয়ে এক চিলতে আলোর সন্ধান মিলছিল। কিন্তু নতুন বছরের শুরুতে কোভিড-১৯-এর কবল থেকে মুক্তির দিকে এগনোর পথেই আতঙ্ক বাড়াচ্ছে ব্রিটেনের (UK) নয়া করোনা ভাইরাসের স্ট্রেন! এই পরিস্থিতিতে গবেষকদের আশঙ্কা, এই নতুন প্রজাতির ভাইরাস শিশু ও কমবয়সিদের জন্য অনেক বেশি সংক্রামক হয়ে উঠতে পারে!

Advertisement

এখনও পর্যন্ত কোভিড-১৯ ভাইরাস (COVID-19) থেকে সেভাবে সংক্রমিত হয়নি শিশুরা (Children)। কিন্তু নতুন স্ট্রেন থেকে তাদের আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা গবেষকদের। তেমনটাই জানাচ্ছে ব্রিটেন সরকারের এক সূত্র। লন্ডনের ‘ইম্পেরিয়াল কলেজ’-এর অধ্যাপক নিল ফার্গুসন জানাচ্ছেন, এই মিউটেশনের ফলে শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তেমনই ইঙ্গিত মিলেছে। গত নভেম্বরে স্কুল খোলার পরই বহু শিশু আক্রান্ত হয়েছিল করোনা ভাইরাসে। তাঁর মতে, এর পিছনেও থাকতে পারে এই নয়া স্ট্রেন।

[আরও পড়ুন: লন্ডন ফেরত ১৫ যাত্রীর শরীরে নতুন করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাবনা! চাঞ্চল্য মুম্বইয়ে]

যদিও বিষয়টি এখনই নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয় বলেও জানিয়েছেন ওই গবেষক। বরং আরও বেশি গবেষণা ও পর্যবেক্ষণ প্রয়োজন বলেই জানান তিনি। তবে এখনও পর্যন্ত অনূর্ধ্ব পনেরো বছরের ছেলেমেয়েদের মধ্যে সংক্রমণ যেভাবে ছড়িয়েছে তা থেকে আশঙ্কা ক্রমেই বাড়ছে। তবে অন্য বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, এই তথ্য একেবারেই প্রাথমিক। এবং এর উপরে নির্ভর করে এখনই নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয় যে, এই নতুন স্ট্রেন ছোটদের মধ্যে বেশি বিপজ্জনক হয়ে উঠছেই। 

এদিকে ফার্গুসন আশ্বস্ত করছেন‌, নতুন প্রজাতির ভাইরাসের সংক্রমিত করার ক্ষমতা বেশি থাকলেও এটা বেশি বিপজ্জনক, এমন প্রমাণ মেলেনি। অর্থাৎ এর থেকে মৃত্যুহার বাড়ার কিংবা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধির সম্ভাবনা তেমন নেই। এই নতুন স্ট্রেনের সবচেয়ে বেশি দাপট দেখা গিয়েছে ইংল্যান্ডের দক্ষিণ-পূর্ব অর্থাৎ কেন্ট ও লন্ডনে। কেবল ডিসেম্বরেই ১ হাজারের বেশি মানুষ এই নয়া স্ট্রেনে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানানো হলেও, বেসরকারি মতে সংখ্যাটা অনেক বেশি।

[আরও পড়ুন : রোহিঙ্গাদের বসতি তৈরিতে পরিবেশের ক্ষতি, বাংলাদেশে ধ্বংস হাজার হাজার একর বনাঞ্চল]

Advertisement
Next