Advertisement

সাবধান! ইমার্শন রড দিয়ে জল গরমের সময় এ সব না মানলেই বিপদ

08:13 PM Nov 19, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আবহাওয়ায় শীত শীত ভাব। ইতিমধ্যেই বহু বাড়িতে পাখা বন্ধ। রাতে শোয়ার সময় গায়ে একটু মোটা চাদর দিলে আরাম পাওয়া যাচ্ছে। মোটামুটি শীতের আমেজ এখন ভরপুর। তার উপর যদি সকাল সকাল স্নানের ব্যাপার থাকে, তাহলে তো কথাই নেই। গরমজল তো চাই-ই।

Advertisement

অনেকেই ইমার্শন রড দিয়ে জল গরম করে, সেই জল দিয়ে স্নান করেন। খুব দ্রুত জল গরম করার ক্ষেত্রে ইমার্শন রড দারুণ কাজ করে। গিজারের থেকে দামে সস্তা হওয়ার কারণে ইমার্শন রড অনেকেই ব্যবহার করে থাকেন। তবে যদি এটি ব্যবহার করার ক্ষেত্রে একটু সাবধান হওয়া দরকার।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

১) ২ বছরের বেশি পুরনো ইমার্শন রড ব্যবহার করার ক্ষেত্রে একটু সচেতন থাকুন। অবশ্য়ই চেক করে নিন। কারণ পুরনো হয়ে গেলে এতে নানা সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে। চেক না করে দুম করে জল গরম করতে যাবেন না।


২) লোহার বালতিতে ইমার্শন রড দিয়ে কখনওই জল গরম করবেন না। এতে কারেন্ট লাগার সুযোগ থাকে। বরং প্লাস্টিকের বালতিতে জল গরম করে নিন। তবে দেখে নেবেন ইমার্শন রডটি যেন বালতির নিচে গিয়ে না লাগে।

[আরও পড়ুন: বাজি পোড়ানো নাপসন্দ? এবার নাহয় একটু অন্যরকমভাবে কাটান দীপাবলি, রইল টিপস]

৩) লোকাল কোম্পানির ইমার্শন রড তাড়াতাড়ি খারাপ হওয়ার বা এতে কারেন্ট লাগার ঝুঁকি থাকে। তাই সব সময়ই ব্র্যান্ডেড কোম্পানির রডই ব্যবহার করা ভাল। 

৪) ইমার্শন রড অন অবস্থায় কখনওই বালতি থেকে জল নেবেন না বা জল গরম হয়েছে কিনা তা মোটেই জলে হাত দিয়ে দেখবেন না।

৫) জল গরম হয়ে গেলে ঠান্ডা হওয়ার পর নিরাপদ জায়গায় ইমার্শন রড রেখে দিন। ইমার্শন রডে জং পড়ে গেলে শুকনো অবস্থায় স্ক্রাবার দিয়ে ঘষে নিন।

[আরও পড়ুন: প্রতিবেশীর কুনজর থেকে বাঁচতে মেনে চলুন বাস্তু বিশেষজ্ঞদের এই ৫ পরামর্শ ]

 

Advertisement
Next