Advertisement

ইউজারদের সমস্ত তথ্য সম্পূর্ণ সুরক্ষিত, বিতর্কের মধ্যেই জবাব হোয়াটসঅ্যাপের

04:29 PM Jan 12, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হোয়াটসঅ্যাপের (WhatsApp) নয়া প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে সরগরম নেটদুনিয়া। ইউজারদের নাম, ছবি ও এমনকী কথোপকথন প্রকাশ্যে চলে আসার অভিযোগ উঠেছে। গুগল সার্চে নাকি মিলছে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের সমস্ত তথ্য। ফলে জনপ্রিয় এই মেসেজিং অ্যাপ ছেড়ে অনেকেই টেলিগ্রাম (Telegram) এবং সিগন্যালের (Signal) মতো অ্যাপ ব্যবহার শুরু করেছেন। অবশেষে এই পরিস্থিতিতে মুখ খুলল হোয়াটসঅ্যাপ। জানিয়ে দিল, ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্য সম্পূর্ণ নিরাপদ। নতুন প্রাইভেসি পলিসির কারণে তা বিঘ্নিত হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই।

Advertisement

প্রাইভেসি পলিসির আপডেটের ঘোষণা করার পর থেকে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করলেও হোয়াটসঅ্যাপ এতদিন কার্যত মুখে কুলুপ এঁটেই ছিল। এই প্রথম তারা এই নিয়ে বিবৃতি দিল। সেই বিবৃতিতে পরিষ্কার বলা হয়েছে, ‘‘সম্প্রতি আমরা আমাদের প্রাইভেসি পলিসি আপডেট করেছি। আর তার পর থেকেই নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছি আমরা। চারদিকে অনেক গুজব রয়েছে। তাই কিছু কমন প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হচ্ছে। আমরা পরিষ্কার করে বলে দিতে চাই পলিসি আপডেটের ফলে বন্ধু ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে শেয়ার করা আপনাদের মেসেজের গোপনীয়তায় বিন্দুমাত্র প্রভাব পড়বে না।’’

[আরও পড়ুন : হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ফাঁস হতে পারে ব্যক্তিগত তথ্য! পরিবর্তে এই ২ মেসেজিং অ্যাপই পছন্দ ইউজারদের]

হোয়াটসঅ্যাপের তরফে আরও কিছু বিষয়কে আলাদা করে পরিষ্কার করে দেওয়া হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ জানাচ্ছে, তারা কিংবা ফেসবুক কেউই ইউজারদের ব্যক্তিগত মেসেজ পড়ছে না কিংবা তাদের কল শুনছে না। কাদের সঙ্গে ইউজাররা যোগাযোগ রাখছেন কিংবা কোন লোকেশনে তাঁরা রয়েছেন, সেই তথ্যও শেয়ার করে না হোয়াটসঅ্যাপ। হোয়াটসঅ্যাপে প্রাইভেট গ্রুপগুলির গোপনীয়তাও সম্পূর্ণ সুরক্ষিত। এরই পাশাপাশি ইউজারদের কনট্যাক্টস ফেসবুকের সঙ্গে শেয়ার করার যে জল্পনা শোনা যাচ্ছে তাও উড়িয়ে দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ।

হোয়াটসঅ্যাপ বরাবরই জানিয়ে এসেছে, এই অ্যাপে সমস্ত প্রাইভেট চ্যাট এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টেড। অর্থাৎ দু’জনের মধ্যে যাই কথা হোক না, তা হোয়াটসঅ্যাপও জানতে পারে না। ফলে ওই দু’জনের মধ্যে কেউ স্ক্রিনশট শেয়ার না করলে তা ফাঁস হওয়া সম্ভব নয়। নতুন বিবৃতিতে সেকথা আরও একবার পরিষ্কার করে দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ।

[আরও পড়ুন : বাড়ছে যাত্রীদের প্রযুক্তি নির্ভরতা, রেলের টিকিট সংরক্ষণের তথ্য এবার টুইটার-ফেসবুকে]

Advertisement
Next