আশঙ্কাই সত্যি, মাস্কের হাতে মালিকানা যাওয়ার আগেই ছাঁটাই শুরু টুইটারে, বন্ধ নতুন নিয়োগও

11:31 AM May 13, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এলন মাস্কের অধিগ্রহণের পর টুইটারের (Twitter) ভবিষ্যৎ যে অনিশ্চয়তার মধ্যে চলে যেতে পারে, সে আশঙ্কা আগেই করেছিলেন সিইও পরাগ আগরওয়াল। সেই আশঙ্কাই যেন এবার সত্যি হচ্ছে। এলন মাস্কের হাতে মালিকানা হস্তান্তরের অনেক আগেই টুইটারে শুরু হয়ে গেল ছাঁটাই পর্ব। বৃহস্পতিবার টুইটারের দুই শীর্ষকর্তাকে ছাঁটাই করেছেন সিইও পরাগ আগরওয়াল। শুধু তাই নয়, বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে নতুন নিয়োগও।

Advertisement

সূত্রের খবর, টুইটারের রিসার্চ, ডিজাইন এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার কেভান বেকপার এবং প্রোডাক্ট বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ব্রুস ফাল্ককে ছাঁটাই করেছেন সিইও পরাগ আগরওয়াল। এদের মধ্যে কেভান বেকপার আবার পিতৃত্বকালীন ছুটিতে ছিলেন। ক্ষুব্ধ কেভানের বক্তব্য, “আমি এভাবে টুইটার ছাড়তে চাইনি। এটা আমার নেওয়া সিদ্ধান্তও নয়।” সদ্য চাকরি হারানো টুইটার কর্তা বলে দিয়েছেন, আমাকে চাকরি ছাড়তে বলা হয়েছিল। পরাগ আগরওয়াল নাকি তাঁকে বলেছিলেন, এবার টুইটারকে অন্য দিশায় নিয়ে যেতে চান তিনি। এখানেই শেষ নয়, টুইটার জানিয়ে দিয়েছে চলতি সপ্তাহ থেকেই কর্মী নেওয়া বন্ধ করে দিচ্ছে তারা।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: জুনে রাজ্যসভার ৫৭টি আসনে নির্বাচন, কমতে চলেছে বিজেপির সাংসদ সংখ্যা]

কিছুদিন আগেই এলন মাস্ক (Elon Mask) বলেছিলেন, টুইটারের বর্তমান বোর্ডের কার্যকলাপের উপর তাঁর খুব একটা ভরসা নেই। সেক্ষেত্রে মনে করা হচ্ছিল মাস্ক সংস্থাটি কিনে নেওয়ার পর সিইও পরাগ আগরওয়াল-সহ গোটা ম্যানেজমেন্টের চাকরি যেতে পারে। চাকরি যেতে পারে কিছু কর্মীরও। যদিও মাস্ক টুইটার কেনার পর পরাগ আগরওয়াল দাবি করেছিলেন, এখনই কোনও কর্মীর চাকরি যাবে না। এলন মাস্কের টুইটার অধিগ্রহণ সংক্রান্ত চুক্তিটি সম্পূর্ণ হতে আরও অন্তত মাসছ’য়েক সময় লাগবে। ততদিন কোনও কর্মী ছাঁটাই হবে না। কিন্তু নিজের দেওয়া সেই কথা রাখতে পারেননি পরাগ আগরওয়াল।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: দেশে ফের কমছে করোনা সংক্রমণ, একদিনে মৃত ৯ জন, নিয়ন্ত্রণে অ্যাকটিভ কেসও]

অনেকে মনে করছেন, দুই শীর্ষকর্তার ছাঁটাইয়েই প্রমাণ হয়ে গেল টুইটারের সব সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা এখন আর পরাগের হাতে নেই। সেক্ষেত্রে দ্রুত তাঁর নিজের চাকরি যাওয়ার সম্ভাবনাও প্রবল। যদিও পরাগের (Parag Agarwal) চুক্তি অনুযায়ী এখনই তাঁকে সরানো কঠিন। এখন তাঁকে সরাতে হলে ৪২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবেন মাস্ক।

Advertisement
Next