পুজোর জনসংযোগে এবার মিঠুনই ভরসা বিজেপির, একাধিক জেলায় পুজো উদ্বোধনের সম্ভাবনা

05:06 PM Sep 23, 2022 |
Advertisement

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: দুর্গাপুজোর (Durga Puja 2022) জনসংযোগে এবার বিজেপির ভরসা মিঠুন চক্রবর্তী। কলকাতার পাশাপাশি বালুরঘাট, বর্ধমান, বোলপুরে পুজো উদ্বোধন করতে পারেন তিনি। বিজেপির EZCC-র পুজোয় অমিত শাহের সঙ্গেও দেখা যেতে পারে মিঠুনকে (Mithun Chakraborty)। হঠাৎ করে পুজোর মুখে মিঠুন চক্রবর্তীকে সামনে রেখে বিজেপির কর্মসূচি নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তৃণমূল নেতারা।

Advertisement

শুক্রবার সকালে কলকাতায় পৌঁছেছেন মিঠুন চক্রবর্তী। শোনা যাচ্ছে, এবার পুজো তিলোত্তমাতেই কাটাবেন। আগামী সপ্তাহে বালুরঘাটে রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের পুজোর উদ্বোধনে যেতে পারেন 'মহাগুরু'। এর পাশাপাশি বোলপুর ও বর্ধমানেও পুজোর উদ্বোধনে যেতে পারেন তিনি। কলকাতার বেশ কয়েকটি পুজোয় মিঠুন চক্রবর্তী যেতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে। যদিও এ বিষয়ে দলের তরফে নিশ্চিতভাবে কিছু জানানো হয়নি। তবে EZCC-তে বিজেপির তরফে যে পুজোর আয়োজন করা হচ্ছে, সেখানে সামিল হবেন মিঠুন। অমিত শাহের সঙ্গেও দেখা যেতে পারে তাঁকে। ওয়াকিবহাল মহলের দাবি, পুজোয় এক্সট্রা মাইলেজ পেতেই মিঠুন চক্রবর্তীর জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি।

[আরও পড়ুন:সল্টলেকে বিজেপির দুর্গাপুজোয় মহিলা পুরোহিত, আসতে পারেন নাড্ডা-শাহ ]

এ বিষয়ে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ বলেন, "বিজেপি বিশ্বাসঘাতককে নামাচ্ছে পুজোয় জনসংযোগে। কিন্তু বাংলার মানুষ বিশ্বাসঘাতককে মানে না।" তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন বলেন, "মিঠুন চক্রবর্তী আসছেন তা ভাল কথা। কিন্তু খবরদার, কাউকে এক ছোবলে ছবি করে দেবেন না।" যদিও তৃণমূল নেতাদের কটাক্ষকে গুরুত্ব দিতে নারাজ বিজেপি। এ বিষয়ে শমীক ভট্টাচার্য বলেন, "তৃণমূল মিঠুনের জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়েছিল। তৃণমূল ওনাকে দাক্ষিণ্য করেনি। এসব করে লাভ নেই বাংলায় পরিবর্তন আসবেই।"

Advertising
Advertising

প্রসঙ্গত, বিধানসভা নির্বাচনে পর্যুদস্ত হওয়ার পর থেকেই বঙ্গ বিজেপির জনবিচ্ছিন্নতা কাটছে না। তাই জনসংযোগ বাড়াতে শারদোৎসবকে সামনে রেখে হেভিওয়েট নেতাদের বাংলায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা গেরুয়া শিবিরের। ভরসা সেই অমিত শাহ ও জে পি নাড্ডারা। দলের দুই হেভিওয়েট নেতা পুজোয় কলকাতায় যাওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করায় প্রবল উৎসাহে ময়দানে নেমে পড়েছেন বঙ্গ বিজেপির (BJP) নেতারা। জেপি নাড্ডা, শাহের মতোই নিজেদের অবস্থান পোক্ত করতে ও কর্মীদের চাঙ্গা করতে বিজেপির হাতিয়ার মিঠুনও।

[আরও পড়ুন: গত দু’বছরে রাজ্যে কোনও কৃষক আত্মহত্যা করেননি, দাবি কৃষিমন্ত্রীর]

Advertisement
Next