Ambubachi Mela 2022: করোনার ধাক্কা কাটিয়ে ২ বছর পর কামাক্ষ্যায় অম্বুবাচীর মেলা, জারি একাধিক বিধিনিষেধ

03:34 PM Jun 23, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার জেরে পরপর দু’বছর পড়েছিল ছেদ। তবে বর্তমানে কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা কার্যত সম্ভব হয়েছে। সে কারণে দু’বছর পর বুধবার থেকে গুয়াহাটির কামাক্ষ্যা মন্দিরে শুরু হল অম্বুবাচীর মেলা (Ambubachi Mela 2022)। আগামী ২৬ জুন পর্যন্ত মেলা চলবে। ১০ লক্ষেরও বেশি পুণ্যার্থী কামাক্ষ্যা মন্দিরে ভিড় জমাতে পারেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

Advertisement

সতীর দেহের ৫১টি অংশ যেখানে পড়েছিল, সেই জায়গাগুলিতেই শক্তিপীঠ তৈরি হয়। ৫১টি শক্তিপীঠের মধ্যে গুয়াহাটির কামাক্ষ্যা মন্দিরও একটি। এই মন্দিরে মা কামাক্ষ্যার যোনি পড়েছিল। কথিত আছে, প্রতি বছর অম্বুবাচীর সময়ে দেবী ঋতুমতী হন। বার্ষিক ঋতুস্রাবের উদযাপনে মন্দিরে লক্ষ লক্ষ ভক্ত সমাগম হয়। অম্বুবাচী মেলার সময় কামাক্ষ্যা মন্দিরের দরজা তিনদিন বন্ধ থাকে। তিনদিন পর দেবীপ্রতিমাকে স্নান করানো হয়। নানা ধরনের আচার অনুষ্ঠান। সেই সময় ভক্তরা মন্দিরে ঝুকতে পারেন। অনেকেই বিশ্বাস করেন, সেই সময় মায়ের কাছে ভক্তিভরে প্রার্থনা করলে মনোবাঞ্ছা পূরণ হয়।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ‘প্রতিশোধ নিচ্ছি, পুলিশ যাবে না’, বগটুই কাণ্ডে ফোনে বলেছিলেন আনারুল! চার্জশিটে জানাল CBI]

কামাক্ষ্যা মন্দিরে অম্বুবাচী মেলা শুরু হয়েছে বুধবার থেকে। আগামী শনিবার পর্যন্ত চলবে মেলা। ১০ লক্ষেরও বেশি পুণ্যার্থীর সমাগম হবে বলেই আশা করা হচ্ছে। অম্বুবাচী মেলা উপলক্ষ্যে একাধিক বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। আপাতত কামাক্ষ্যা মন্দিরের আশেপাশের কোনও হোটেলে বেশি জমায়েত করা যাবে না। জেলা প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া রান্না করা খাবার বিলি করা যাবে না। দূরপাল্লার বাস আপাতত ডিজি রোড, এমজি রোড এবং টি আর ফুকান রোড দিয়ে যাতায়াত করবে। ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ। রাত ১২টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত শুধুমাত্র ছোট ও মাঝারি গাড়ি মন্দির সংলগ্ন রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে পারবে।

অম্বুবাচীর সময় পুজো করতে করতে মন্ত্রপাঠ করা অনুচিত। শুধুমাত্র ধূপ ও প্রদীপ জ্বালিয়ে প্রণাম করতে হয়। বাড়িতে কোনও শুভ কাজ করবেন না। বৃক্ষরোপণ কিংবা কৃষিকাজও এই সময়ে করতে নেই। সংসারের শুভ কামনায় অম্বুবাচীতে তুলসী গাছের গোড়ার দিকে নজর দিন। ভাল করে মাটি দিয়ে উঁচু করে দিন গোড়া। শাক্তমন্ত্রে দীক্ষিতরা মন্ত্র পাঠও করতে পারেন।

[আরও পড়ুন: গণধর্মের গণদেবতা প্রভু জগন্নাথ, স্নানযাত্রা শেষে ভক্তদের দর্শন দেন গজানন রূপে]

Advertisement
Next