সঙ্গমের পরই স্ত্রী মাকড়শারা খেয়ে ফেলে পুরুষ সঙ্গীদের! প্রাণ বাঁচাতে কী করে তারা?

04:14 PM Apr 27, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাকড়শা (Spider)। বিচিত্রদর্শন আটপেয়ে এই জীবটিকে নিয়ে অনেকেরই অস্বস্তি রয়েছে। আবার এদের নিয়ে কৌতূহলেরও শেষ নেই প্রাণীবিজ্ঞানীদের। তাদের জাল বোনার কায়দা, জালের গাণিতিক গঠন নিয়ে বহু গবেষণা হয়েছে। কিন্তু একই সঙ্গে মাকড়শাদের যৌনতাও চমকপ্রদ। বহু স্ত্রী মাকড়শাকে দেখা যায় মিলনের (Intercourse) পরে নিজের পুরুষ সঙ্গীকে খেয়ে ফেলতে! এই ‘বিপদ’ থেকে বাঁচতে পুরুষ মাকড়শারাও কম যায় না। তারাও নতুন নতুন পরিকল্পনা করতে থাকে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় উঠে এল মাকড়শাদের দুনিয়ার এমনই আজব তথ্য।

Advertisement

‘কারেন্ট বায়োলজি’ নামের জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে মাকড়শাদের যৌনতা সংক্রান্ত একটি গবেষণাপত্র। গবেষকরা জানিয়েছেন, তাঁরা ১৫৫টি মাকড়শা জুটিকে যৌনতা করতে দেখেছেন। এদের মধ্যে পরিত্রাণ পেয়েছে ১৫২টি পুরুষ মাকড়শাই। বাকি ৩টি মাকড়শাকে অবশ্য বন্দি করে হত্যা করতে দেখা গিয়েছে স্ত্রী মাকড়শাদের। এবং তারপর তাদের গলাঃধকরণও করেছে তাদের সঙ্গিনীরা।

[আরও পড়ুন: ‘পেট্রোপণ্যে ভ্যাট না কমানো রাজ্যবাসীর সঙ্গে অন্যায়’, বাংলা-সহ বিরোধী রাজ্যগুলিকে তোপ মোদির]

কিন্তু বাকিরা? তারা কীভাবে পরিত্রাণ পেল নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে? দেখা যাচ্ছে, এই মাকড়শারা চকিতে লাফিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যাচ্ছে। ফলে স্ত্রী মাকড়শারা আর তাদের নাগাল পাচ্ছে না। ঠিক কেমন সেই প্রক্রিয়া? ব্যাপারটা অনেকটা গুলতিতে ঢিল ছোঁড়ার মতো। পুরুষ মাকড়শারা নিজেদের একেবারে সামনের জোড়া পা’কে এজন্য ব্যবহার করে। সেটিতে ভর দিয়েই যেন নিজেদের ছুঁড়ে দেয়। আর তাতেই চোখের নিমেষে তারা ছিটকে অন্যত্র চলে যায়।

Advertising
Advertising

কতটা গতিতে তারা লাফায়? দেখা গিয়েছে এই সময় ওই মাকড়শাদের গতিবেগ থাকে প্রতি সেকেন্ডে ৮৮ সেন্টিমিটার! এই থেকেই বোঝা সম্ভব কেমন ভয়ানক গতিতে তারা লাফিয়ে পালিয়ে যায় সঙ্গিনীর কবল থেকে। গবেষকরা পরীক্ষার সময় অন্তত ৩০টি পুরুষ মাকড়শাকে লাফানো থেকে আটকে দিয়েছেন। দেখা গিয়েছে, তারা সকলেই রাতারাতি স্ত্রী সঙ্গীর খাদ্যে পরিণত হয়েছে।

[আরও পড়ুন: মন্ত্রী থেকে IAS-IPS, সবাইকে দিতে হবে সম্পত্তির হিসেব, দুর্নীতিতে ‘বুলডোজার’ যোগীর]

মাকড়শাদের এই যৌনতার বিষয়টি নিয়ে বহুদিন ধরেই গবেষণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। দেখা গিয়েছে, পুরুষ মাকড়শারা নানা অদ্ভুত কৌশল অবলম্বন করে। কেউ সঙ্গিনীকে বেঁধে ফেলে জাল দিয়ে। কেউ বা রেশমে মোড়া শিকার ধরে এনে উপহার দেয় খাদ্য হিসেবে। কেউ কেউ আবার ঘুঁষি মেরে পালিয়েও যায়। এবার সামনে এল আরেক কৌশল। যা মনে করে দিল বহু প্রাচীন সংস্কৃত প্রবাদ। য পলায়তি স জীবতি।

Advertisement
Next