মার্কিন মহাকাশযানের মঙ্গলের মাটি ছোঁয়ার ভিডিও শেয়ার করল নাসা

04:01 PM Feb 23, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলে (Mars) নেমেছে নাসার (NASA) মহাকাশযান ‘পারসিভিয়ারেন্স’ (Perseverance)। এর মধ্যেই লালগ্রহের মৃত নদী ও গিরিখাতের একাধিক ছবি পাঠিয়েছে যানটি। এবার নাসা প্রকাশ করল রোভারের রেকর্ড করা মঙ্গলের অডিও। সেই সঙ্গে প্রকাশ করা হয়েছে মঙ্গলের মাটিতে রোভারের অবতরণের মুহূর্তের ভিডিও। প্রসঙ্গত, সুদূর অতীতে মঙ্গলে প্রাণ ছিল কিনা, তার চিহ্ন খুঁজে বের করাই আমেরিকার এই মঙ্গল অভিযানের উদ্দেশ্য।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

সাত মাস আগে পৃথিবী ছেড়েছিল মার্কিন মহাকাশযান। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলের মাটি স্পর্শ করেছিল পারসিভিয়ারেন্স রোভার। সেই ঐতিহাসিক মুহূর্ত ধরা পড়েছে উন্নতমানের ক্যামেরায়। তবে নামার সময় মাইক্রোফোন ঠিকমতো কাজ করেনি রোভারের। তবে মঙ্গলে নামার পরে অডিও রেকর্ড করতে সক্ষম হয় সেটি। ৩ মিনিট ২৫ সেকেন্ডের ভিডিও ক্লিপে দেখা গিয়েছে লাল-সাদা প্যারাশ্যুটের নেমে আসার দৃশ্য। তারপরে দেখা যাচ্ছে নাসার দপ্তরের দৃশ্য। মহাকাশযানের সফল অবতরণের পরে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়তে দেখা যায় বিজ্ঞানীদের। নাসার এক কর্তা মাইকেল ওয়াটকিনসের দাবি, ”এই প্রথম আমরা মঙ্গলে অবতরণের মতো কোনও দৃশ্য এভাবে তুলতে পারবে।”

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: পৃথিবীর ওজোন স্তরে ফাটল ধরাতে পারে চিন! অশনি সংকেত গবেষকদের]

গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা উড়িয়ে জেজেরো ক্রেটারে নেমেছে ‘পারসিভিয়ারেন্স’। তারপর থেকেই পাথুরে, এবড়োখেবড়ো এবং উঁচু উঁচু পাহাড়ে ভরতি এলাকায় ছুটে বেড়াচ্ছে রোভারটি। উদ্দেশ্য, মঙ্গলে প্রাণের সন্ধান করা। মঙ্গলের ওই অঞ্চলে মৃত নদীর অবশেষ ও গিরিখাত রয়েছে। সেগুলির ছবি তুলে পৃথিবীতে নাসার গ্রাউন্ড স্টেশনে পাঠিয়ে দিয়েছে রোভারটি। জানা গিয়েছে, স্কাইক্রেন পদ্ধতি অনুসরণ করে ছয় ইঞ্জিনের জেটপ্যাকের মদতে গতি কমিয়ে আলতো করে মঙ্গলের মাটি স্পর্শ করে ‘পারসিভিয়ারেন্স’। সাত মিনিটের সেই অবতরণ প্রক্রিয়া নিয়েই চিন্তায় ছিলেন বিজ্ঞানীরা। অবশেষে সেই দুশ্চিন্তা শেষ হয়েছে। এখন দেখার এই মহাকাশযান মঙ্গল সম্পর্কে নতুন কোনও অজানা তথ্য দিতে পারে কিনা। প্রসঙ্গত, এর কয়েকদিন আগেই মঙ্গলের কক্ষপথে পৌঁছেছে চিন ও সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর দুই মহাকাশযান। তবে সেগুলি মঙ্গলের কক্ষপথে চক্কর কাটছে।

[আরও পড়ুন: কঠিন পরীক্ষার মুখে নাসার পারসিভিয়ারেন্স, অবতরণের আগে গুরুত্বপূর্ণ ৭ মিনিট নিয়ে চিন্তা]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next