Advertisement

আইপিএল থেকে ছিটকে গেল পাঞ্জাব, নিজেদের শেষ ম্যাচ জিতেই মাঠ ছাড়লেন ধোনিরা

07:28 PM Nov 01, 2020 |
Advertisement
Advertisement

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব: ২০ ওভারে ১৫৩/৬ (দীপক হুডা ৬২, এনগিডি ৩/‌৩৯)
চেন্নাই সুপার কিংস: ১৮.‌৫ ওভারে ১৫৪/‌১ (‌গায়কোয়াড ৬২*‌, জর্ডন ১/‌৩১)
নয় উইকেটে জয়ী চেন্নাই সুপার কিংস ‌

Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ‌চলতি IPL-এ শেষবারের মতো মাঠে নামলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি (Mahendra Singh Dhoni)। আর নয় উইকেটে ম্যাচ জিতে তবেই মাঠ ছেড়ে বেরলেন। সৌজন্যে অবশ্যই চেন্নাইয়ের টপ অর্ডারের দুরন্ত ব্যাটিং। অন্যদিকে, খাদের কিনারা থেকে দুরন্ত লড়াই করে পরপর ম্যাচ জিতেছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব (Kings Xi Punjab)। প্লে-অফের দৌড়ে ফিরে এসেছিল। কিন্তু রবিবার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিল প্রীতির পাঞ্জাব। শুধু তাই নয়, শেষ দু’‌টি স্থানের জন্য লড়াই করা বাকি দলগুলির কাজ কিছুটা হলেও সহজও করে দিলেন রাহুলরা।

এদিন টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ধোনি। আর সে সময়ই নিজের অবসর নিয়ে যাবতীয় জল্পনারও জবাব দেন। ড্যানি মরিসন তাঁকে সরাসরি প্রশ্ন করেন, ‘‌‘‌হলুদ জার্সিতে এটাই কি আপনার শেষ ম্যাচ?’‌’‌ এরপর ধোনি তাঁকে হাসতে হাসতে কেবল দু’‌টি শব্দে জবাব দিয়ে দেন। ‘‌অবশ্যই না।’‌ আর এতেই পরিস্কার এখনই অবসরের কোনও ভাবনা নেই ক্যাপ্টেন কুলের। আগামী বছর আইপিএলেও তাঁকে খেলতে দেখা যাবে।

[আরও পড়ুন: ডার্বি দিয়ে শুরু ISL অভিযান, কঠিন ম্যাচকেই পাখির চোখ করছেন ইস্টবেঙ্গল কোচ ফাউলার]

এদিকে, প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভাল করলেও মাঝের ওভারে নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারাতে থাকে পাঞ্জাব। ভাল শুরু করেও আগরওয়াল (‌২৬)‌ এবং রাহুল (‌২৯)‌ ফিরতেই, পরপর বেশ কয়েকটি উইকেট পড়ে যায়। শেষদিকে, দীপক হুডা ৩০ বলে ৬২ রানের ঝোড়ো ইনিংসের সৌজন্যে ১৫০ রানের গণ্ডি পেরোয় কিংসদের ইনিংস। তিনটি চার এবং চারটি ছয় মারেন দীপক। শেষপর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঞ্জাবের রান দাঁড়ায় ছ’‌উইকেটে ১৫৩। চেন্নাইয়ের হয়ে এনগিডি ৩৯ রান দিয়ে তিনটি উইকেট নেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দুরন্ত শুরু করেন দুই চেন্নাই ওপেনার ঋতুরাজ গায়কোয়াড এবং ফাফ ডু’‌প্লেসি। প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান অল্পের জন্য অর্ধ–শতরান হাতছাড়া করেন। ৩৪ বলে ৪৮ রান করে জর্ডনের বলে আউট হন। অন্যদিকে, অবশ্য, কেকেআরের বিরুদ্ধে জয়ের নায়ক গায়কোয়াড এবং অম্বাতি রায়াডু সহজেই দলকে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছে দেন। মাত্র একটি উইকেট হারিয়েই। ফলে ব্যাট হাতে নামতেও হয়নি ধোনিকে।

এদিকে, পাঞ্জাব এই ম্যাচ হারায় কেকেআরের অনেকটাই সুবিধা হল। তবে নেট রানরেট ঠিক রাখতে রাজস্থানকে (Rajasthan Royals) যতটা সম্ভব বড় ব্যবধানে হারাতে হবে। তারপরও তাকিয়ে থাকতে হবে হায়দরাবাদ বনাম মুম্বই ম্যাচের দিকে। কারণ পয়েন্ট টেবিলের যা অবস্থা এখন সবচেয়ে সুবিধাজনক জায়গায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (Sunrisers Hyderabad)। ওয়ার্নাররা তাঁদের শেষ ম্যাচ মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে হেরে গেলে এবং KKR শেষ ম্যাচ জিতে গেলেই চলে যাবে শেষ চারে। অন্যদিকে, রাজস্থানের কাছে হারলে আজই শেষ হয়ে যাবে সমস্ত আশা।

[আরও পড়ুন: সমর্থকদের দাবি মেনে শীঘ্রই বদলাচ্ছে এটিকে-মোহনবাগানের জার্সি, আশ্বস্ত করলেন কর্তারা]

Advertisement
Next