Advertisement

আইপিএল, সিপিএলের পর এবার মার্কিন টি-২০ লিগে বড়সড় বিনিয়োগ করতে চলেছে KKR

12:17 PM Dec 01, 2020 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইপিএলে (IPL) তাঁর দল অন্যতম জনপ্রিয়। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে তাঁর দল সবচেয়ে সফল। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রিমিয়ার লিগেও একটি দল আছে। যদিও সেই টুর্নামেন্ট এখন বন্ধ। পরের মরশুমে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড আয়োজিত ১০০ বলের ক্রিকেট টুর্নামেন্টেও বিনিয়োগ করার আগ্রহ দেখিয়েছে শাহরুখ খানের নাইট রাইডার্স (Kolkata Knight Riders ) গ্রুপ। তবে, এখানেই থেমে থাকছেন না কিং খান। আরও বড় চমক দিয়ে ২০২২ সালে শুরু হতে চলা মার্কিন টি-২০ লিগেও বড় মাত্রায় বিনিয়োগ করতে চলেছে তাঁর ফ্র্যাঞ্চাইজি কেকেআর (KKR)। 

Advertisement

আসলে আইপিএলের ধাঁচে এবার মার্কিন মুলুকেও বড়সড় টি-২০ টুর্নামেন্টের আয়োজন করতে চলেছে আমেরিকান ক্রিকেট এন্টারপ্রাইজ বা ACE। মার্কিন মুলুকে ক্রিকেট প্রথম সারির খেলা হিসেবে গণ্য না হলেও দক্ষিণ এশিয়ার বহু মানুষ সেদেশে বাস করেন। যে কারণে আমেরিকায় ক্রিকেটের একটা বড় বাজার আছে। আর সেই বাজার ধরতেই ২০২২ সাল থেকে ৬ দলের মেজর লিগ ক্রিকেট  শুরু করতে চাইছে ACE। আর তাতেই বিনিয়োগ করবে শাহরুখ খানের ক্রিকেট ফ্র্যাঞ্চাইজি নাইট রাইডার্স। ইতিমধ্যেই ACE’র সঙ্গে চুক্তি সেরে ফেলেছে নাইটরা। যদিও, এই লিগে সরাসরি কোনও দলের মালিকানা তারা পাবে না। গোটা টুর্নামেন্টের একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ অংশীদার হতে হবে নাইটদের। আপাতত এই লিগকে আর্থিক সাহায্য এবং ক্রিকেট সম্পর্কিত পরামর্শ দেবে নাইট শিবির। পরে কোনও একটি দলের দায়িত্ব তাদের দেওয়া হতে পারে।

[আরও পড়ুন: ‘এমন মন্তব্য করতে লজ্জা করল না?’, ওয়ার্নারের চোট নিয়ে রাহুলের প্রতিক্রিয়ায় বিতর্কের ঝড়]

শোনা যাচ্ছে, মার্কিন ক্রিকেট লিগে নয় নয় করতে করতে ৬০ থেকে ৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ হবে। যার একটা বড় অংশ দেবে নাইট রাইডার্স। সব ঠিক থাকলে, এই লিগেই খেলবে নাইট ফ্র্যাঞ্চাইজির চতুর্থ দল। তার আগেই অবশ্য ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ECB) সঙ্গে আলোচনা চলছে নাইটদের। আসলে, এই মুহূর্তে নাইট রাইডার্সই বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট ব্র্যান্ড। এবং সেই ব্র্যান্ডের আরও সম্প্রসারণ চায় মালিকপক্ষ। নাইট রাইডার্স সিইও বেঙ্কি মাইশোর বলছিলেন,”আমরা বেশ কয়েক বছর ধরেই নাইট রাইডার্স ফ্র্যাঞ্চাইজিকে গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে দিচ্ছি। আমেরিকার ক্রিকেটের দিকেও নজর আছে। আশা করছি, মেজর লিগ ক্রিকেটের মধ্যে সাফল্যের সব রসদ আছে।”

Advertisement
Next