কেকেআরের দল নির্বাচনে নাক গলান সিইও! বিতর্কিত মন্তব্যের সাফাই দিলেন শ্রেয়স

01:54 PM May 15, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেকেআরের দল নির্বাচনে নাক গলান সিইও বেঙ্কি মাইশোর (Venky Mysore)। মুম্বই ম্যাচে জয়ের পর রীতিমতো বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিলেন কেকেআর (KKR) অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার। যা নিয়ে ক্রিকেট মহলে রীতিমতো ছি’ছিক্কার পড়ে গিয়েছে। হায়দরাবাদ ম্যাচে জয়ের পর নিজের সেই মন্তব্যের সাফাই দিলেন নাইট অধিনায়ক। শ্রেয়সের বক্তব্য, তিনি শুধু বলতে চেয়েছিলেন, বেঙ্কি মাইশোর প্রথম একাদশ থেকে বাদ পড়া তারকাদের সান্ত্বনা দেন।

Advertisement

মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে বড় জয়ের পর দলে একের পর এক পরিবর্তন নিয়ে অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারকে প্রশ্ন করা হয়। জবাবে তিনি বলেন,”নতুন ব্যাটারদের পক্ষে পরিস্থিতি খুব কঠিন। আমি নিজে যখন খেলা শুরু করেছিলাম, নিজেও এই পরিস্থিতির শিকার হয়েছি। দল নির্বাচন নিয়ে আমরা কোচের সঙ্গে আলোচনা করি। সিইও-ও দল নির্বাচন নিয়ে মতামত দেন।” শ্রেয়সের এই মন্তব্যে রীতিমতো আলোড়ন পড়ে যায় ক্রিকেট মহলে। সুনীল গাভাসকর (Sunil Gavaskar) থেকে শুরু করে মাইকেল ভন, বহু প্রাক্তনী নাইট সিইও বেঙ্কি মাইশোরকে নিশানা করেন। মাইকেল ভন তো বলেই দেন, “আপনার কাজ টাকা-পয়সার হিসাব রাখা। আপনি গিয়ে টাকা গুনুন।”

[আরও পড়ুন: পথ দুর্ঘটনায় প্রাক্তন অজি তারকা অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের অকালপ্রয়াণ, শোকস্তব্ধ ক্রিকেটবিশ্ব]

সব মিলিয়ে গোটা ফ্র্যাঞ্চাইজিই বিতর্কে জড়িয়ে পড়ছিল। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই হায়দরাবাদ ম্যাচে জয়ের পর এ নিয়ে ফের মুখ খুললেন শ্রেয়স। আগের মন্তব্যের সাফাই দিয়ে বলেন,”আমি আগের সাক্ষাৎকারের একটি বিষয় পরিষ্কার করে দিতে চাই। আমি যখন সিইওর নাম নিয়েছিলাম তখন শুধু বলতে চেয়েছিলাম, যে যারা যারা দল থেকে বাদ পড়ছে তাঁদের তিনি সান্ত্বনা দেন। কারণ দল তৈরি করাটা আমাদের পক্ষে বেশ কঠিন কাজ।” বস্তুত শ্রেয়স চাইছেন না এ নিয়ে আর কোনওরকম বিতর্ক হোক।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: দহন জ্বালায় পুড়ছে দিল্লি, তাপমাত্রা পৌঁছাল ৪৬. ১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে]

হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে জয়ের ফলে প্লে-অফের আশা নিভু নিভু করে বেঁচে আছে। কিন্তু তা হলে কী হবে, চলতি আইপিএল (IPL 2022) মরশুমে প্রত্যাশার ধারেকাছেও পারফর্ম করতে পারেনি। তার অন্যতম কারণই হল দলে ঘনঘন বদল আনা। অথচ এই টিমটাই মরশুমের প্রথম চার ম্যাচের মধ্যে তিনটি জিতেছিল। তারপর সবকিছু ওলটপালট হয়ে গেল কেন? অধিক সন্ন্যাসীতে গাজন নষ্ট নয় তো? উঠছে প্রশ্ন।

Advertisement
Next