শুধু গতি থাকলে হবে না…উমরান মালিককে যেন পাত্তাই দিলেন না শাহিন আফ্রিদি

03:00 PM Jun 04, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একজন বিশ্বের দরবারে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে ফেলেছেন। পাকিস্তান দলের নিয়মিত সদস্য এবং আন্তর্জাতিক স্তরে ব্যাটারদের ত্রাস হয়ে উঠে এসেছেন। আরেকজন ক্রিকেট সার্কিটে সদ্যোজাত। সদ্য শেষ হওয়া আইপিএলে (IPL 2022) রীতিমতো নজর কেড়েছেন। তাঁর রাক্ষুসে গতি সামাল দিতে হিমশিম খেয়েছেন তাবড় তাবড় ব্যাটাররাও। কিন্তু প্রথমজন দ্বিতীয় জনকে যেন পাত্তাই দিতে চাইছেন না। প্রথম জন হলেন শাহিন আফ্রিদি আর দ্বিতীয় জন উমরান মালিক (Umran Malik)। আইপিএলে উমরানের রকেট উত্থান নিয়ে শাহিনের বক্তব্য, ‘শুধু গতি থাকলে হবে না। লাইন-লেন্থ না থাকলে কোনও লাভ নেই।’

Advertisement

২০২১ আইপিএলেই বিশেষজ্ঞদের নজর কাড়েন উমরান। সেই কারণেই ৪ কোটি টাকা দিয়ে তাঁকে ধরে রাখে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (Sunrisers Hyderabad)। ২০২২ মরশুমে এসে তাঁর প্রতিভা যেন মঞ্চ পেয়ে যায়। ধারাবাহিকভাবে দ্রুত গতিতে বল করতে থাকেন। আর তুলে নেন একের পর এক উইকেট। আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে ১৫৬.৯ কিলোমিটার গতিতেও বল করতে দেখা গিয়েছে। যা কিনা ফাইনাল পর্যন্ত ছিল আইপিএলের দ্রুততম বল। উমরান নিয়মিত ঘন্টায় দেড়শো কিলোমিটারের বল করতে পারেন।

[আরও পড়ুন: প্রথম একাদশে জায়গা পাওয়ার যোগ্যই নয় অর্জুন! বিস্ফোরক মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বোলিং কোচ]

এই রকেট গতির ফলে সাফল্যও পেয়েছেন তিনি। টুর্নামেন্টে ২২টি উইকেট দখল করেছেন কাশ্মীরের তরুণ পেসার। যা কিনা পেসারদের মধ্যে সর্বোচ্চ। অর্থাৎ রাবাদা, শামি (Mohammad Shami), বুমরাহ, লকি ফার্গুসনদের থেকেও বেশি মারাত্মক ছিলেম উমরান। গতির জন্য যেমন সাফল্য পেয়েছেন, তেমন অবশ্য ভুগতেও হয়েছে। অতিরিক্ত গতির জন্য অনেক সময় অতিরিক্ত রানও খরচ করে ফেলেছেন। কিন্তু সব মিলিয়ে তরুণ ভারতীয় পেসারের উত্থান বেশ নজর কেড়েছে ক্রিকেট মহলের। যদিও শাহিন আফ্রিদি (Shaheen Afridi) সাফ বলে দিয়েছেন,”ভাল লাইন লেন্থ না থাকলে শুধু গতি দিয়ে কিছুই হবে না।” ভাবখানা এমন যেন উমরানকে তিনি বলে দিচ্ছেন, ‘লাইন-লেন্থে উন্নতি করতে না পারলে উমরান সফল হতে পারবেন না।’

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ‘বন্ধ করো আগ্রাসন’, পুতিনকে বার্তা ফুটবল সম্রাট পেলের]

শাহিন এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলার। সদ্যই আইসিসির (ICC) বর্ষসেরা বোলার হয়েছেন। অনেকেই উদীয়মান উমরানকে তাঁর সঙ্গে তুলনা করছেন। সেটাই সম্ভবত না পসন্দ পাক পেসারের। সেজন্যই হয়তো প্রতিপক্ষকে তেমন গুরুত্ব দিচ্ছেন না তিনি।

Advertisement
Next