বোলারদের সঙ্গে অন্যায় হচ্ছে! এবার LBW-এর নিয়মে বড়সড় বদলের দাবিতে সরব অশ্বিন

07:44 PM Jul 13, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্রিকেটে ব্যাটারদের অতিরিক্ত অ্যাডভান্টেজ পাওয়া নিয়ে তিনি বরাবরই সরব। তাঁর ‘আন্দোলনে’র পরই ক্রিকেটের মূল স্রোতে বৈধতা পেয়েছে ‘মানকাড়িং‘। রবিচন্দ্রন অশ্বিন (Ravichandran Ashwin) এবার সরব হলেন এলবিডব্লিউ  অর্থাৎ লেগ বিফোর উইকেটের নিয়মে বড়সড় বদলের দাবিতে।

Advertisement

আসলে টি-টোয়েন্টির যুগে ব্যাটারদের ব্যাটিং স্টাইল বদলেছে। এখন অবলীয়ায় যে কোনও বোলারকে রিভার্স সুইপ বা সুইচ হিট মেরে দেন ঋষভ পন্থ (Rishabh Pant), গ্লেন ম্যাক্সওয়েল বা জো রুটরা। আর এইসব শটের ক্ষেত্রেই লেগ বিফোর দ্য উইকেটের নিয়মে বদল চাইছেন অশ্বিন। তাঁর বক্তব্য, ব্যাটাররা রিভার্স সুইপ খেলতেও পারে। কিন্তু সেক্ষেত্রে বল যদি ব্যাটারের লেগ স্ট্যাম্পের বাইরেও পড়ে তাতেও এলবিডব্লিউ দিতে হবে।

[আরও পড়ুন: দার্জিলিংয়ের রাজভবনে রাজ্যপালের ‘অতিথি’ অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা, কিন্তু কেন?]

এমনিতে ক্রিকেটের নিয়ম অনুসারে, কোনও বল লেগ স্ট্যাম্পের বাইরে পিচ করলে তাতে আর LBW দেওয়া হয় না। তার কারণ, লেগ স্ট্যাম্পের বাইরের জায়গাটা ব্যাটারের জন্য ‘ব্লাইন্ড স্পট’ হিসাবে গণ্য করা হয়। কিন্তু অশ্বিন বলছেন, ব্যাটার যখন রিভার্স সুইপ মারেন তখন লেগ স্ট্যাম্পের বাইরের জায়গাটা তাঁর জন্য আর ব্লাইন্ড স্পট থাকে না। কারণ তাঁর গোটা শরীর শট মারার আগে উলটো দিকে ঘুরে যায়। নিজের সঠিক স্টান্স নিলে অবশ্যই ওটা ব্লাইন্ড স্পট, কিন্তু রিভার্স সুইপ বা সুইচ হিট মারার সময় কখনও ওটা ব্লাইন্ড স্পট নয়। অশ্বিনের দাবি, এক্ষেত্রে বোলারকে এলবিডব্লিউ দিতে হবে।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ফের ঊর্ধ্বমুখী রাজ্যের কোভিড গ্রাফ, দৈনিক সংক্রমণে কলকাতাকে টেক্কা উত্তর ২৪ পরগনার]

অশ্বিনের যুক্তি এজবাস্টন টেস্টেই ১০ বার রিভার্স সুইপ করে ৯ বারই ব্যাটে লাগাতে পারেননি জো রুট। একবার বল ব্যাটের কানায় লাগে। ৯ বারই বল লাগে প্যাডে। বেয়ারস্টোর ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। একজন ব্যাটার যখন ব্যাট করেন তিনি জেনে যান কোথায় কোথায় ফিল্ডার আছে। বুঝে যান বোলার কোন লাইনে বল করবে। কিন্তু ব্যাটার হঠাৎ ডান হাতি থেকে বাঁ হাতি হয়ে যাচ্ছে। এই অন্যায় রুখতেই LBW-এর নিয়মে বদল চাইছেন অশ্বিন। 

Advertisement
Next