Advertisement

শক্তিশালী মুম্বইয়ের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের স্বপ্নভঙ্গ এটিকে মোহনবাগানের

01:00 AM Mar 01, 2021 |
Advertisement
Advertisement

মুম্বই সিটি: ২ (ফল, ওগবেচে)
এটিকে মোহনবাগান: ০

Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একেই হয়তো বলে তীরে এসে তরী ডোবা। গোটা টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত ছন্দে ছিল হাবাসের ছেলেরা। এমনকী গ্রুপ লিগের শেষ ম্যাচে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে নামার আগে পর্যন্তও লিগ তালিকার শীর্ষে ছিল এটিকে মোহনবাগান। এই ম্যাচে ড্র করতে পারলেই নজির গড়তেন রয় কৃষ্ণরা। কিন্তু সব হিসেব এলোমেলো করে দিল সার্জিও লোবেরোর মগজাস্ত্র। আক্রমণাত্মক মুম্বইয়ের কাছে হেরে শূন্য হাতেই মাঠ ছাড়তে হল সবুজ-মেরুন ব্রিগেডকে। আর সেই সঙ্গে ভাঙল তাদের এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার স্বপ্ন। 

এদিন জেভিয়ার হার্নান্ডেজের পরিবর্তে প্রণয় হালদারকে নামিয়েছিলেন হাবাস। সাসপেনশনে থাকা শুভাশিস বসুর বদলে নামেন মার্সেলিনহো। কিন্তু রয় কৃষ্ণদের বিরুদ্ধে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ভক্তিতে খেলেন ওগবেচেরা। আর তাই গোলমুখ খুলতে বেশি সময়ও লাগেনি। মাত্র সাত মিনিটে লং পাশে মাথা ছুঁয়ে অনবদ্য একটি গোল করে দলকে এগিয়ে দেন ফল। প্রথমার্থেই মুম্বইয়ের হয়ে ব্যবধান বাড়ান ওগবেচে। দ্বিতীয়ার্ধেও নিজেদের দাপট বজায় রাখেন তাঁরা। যদিও আর কোনও গোল হজম করতে হয়নি এটিকে মোহনবাগানকে। তবে সেট পিস পজিশন থেকে গোলের সুযোগও হাতছাড়া করেন তাঁরা। উলটোদিকে চ্যাম্পিয়নদের মতো খেলেই লিগ শীর্ষে থাকা দল হিসেবে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ছাড়পত্র হাতে পেয়ে গেল মুম্বই।

[আরও পড়ুন: দুরন্ত প্রত্যাবর্তন, প্রাক্তন বিশ্বচ্যাম্পিয়নকে হারিয়ে সোনা জিতলেন ভিনেশ ফোগাট]

হায়দরাবাদের সঙ্গে ড্র করার পরই মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচটি ফাইনাল ম্যাচে পরিণত হয়েছিল এটিকে মোহনবাগানের। আর সেখানেই কঠিন প্রতিপক্ষের মুখে পড়তে হয় তাঁদের। যে দল কি না গত ম্যাচে লাস্ট বয় ওড়িশাকে ৬ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল। সেই ছন্দেই আজ ধরা দিলেন মুম্বইয়ের ফুটবলাররা। বডি ল্যাঙ্গুয়েজেই জয়ের খিদে স্পষ্ট হয়ে উঠেছিল। তাঁরা এদিন তিন পয়েন্ট ছাড়া আর কিছুই ভাবেননি। উলটোদিকে ড্র করলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ছাড়পত্র পেতেন রয় কৃষ্ণরা। হয়তো সেই ভাবনাই কাল হয়ে দাঁড়াল। সমসংখ্যক ম্যাচে (২০) দুই দলই ৪০ পয়েন্টে শেষ করল। তবে গোল পার্থক্যে এগিয়ে শেষ হাসি হাসল লোবেরো ব্রিগেডই।

[আরও পড়ুন: কেরিয়ারের সেরা ব়্যাঙ্কিংয়ের মালিক রোহিত শর্মা, রেকর্ড গড়ে তিন নম্বরে অশ্বিন]   

Advertisement
Next