এএফসি কাপের শুরুতেই ধাক্কা, গোকুলামের কাছে ধরাশায়ী মোহনবাগান

07:48 PM May 18, 2022 |
Advertisement

গোকুলাম  মোহনবাগান
(লুকা-২, রিশাদ, জিথিন) (প্রীতম, লিস্টন)
সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মেঘের উপর দিয়ে হাঁটছে গোকুলাম কেরালা (Gokulam)। শনিবার মহামেডান স্পোর্টিংকে হারিয়ে টানা দু’ বার আই লিগ জেতে কেরলের দল। বুধবার এএফসি কাপের প্রথম ম্যাচেই মোহনবাগানকে (Mohun Bagan) মাটি ধরাল গোকুলাম। তাদের স্লোভেনিয়ার স্ট্রাইকার লুকা ম্যাজসেন মোহনবাগানকে আকাশ থেকে মাটিতে নামিয়ে আনলেন। বারংবার সবুজ-মেরুনের ডিফেন্স ভাঙল সদ্য আই লিগ জয়ী দল। গোকুলামের আক্রমণের পর আক্রমণে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে মোহনবাগানের রক্ষণ। ভাগ্য ভাল বলতে হবে জুয়ান ফেরান্দোর দলের। খেলার শেষের দিকে মোহনবাগান রক্ষণ ভেঙেও গোল করতে পারেনি গোকুলাম। নাহলে পাঁচ গোল হজম করতে হত সবুজ-মেরুন ব্রিগেডকে। 

Advertisement

শ্রীলঙ্কার ব্লু স্টার ও বাংলাদেশের আবাহনীকে উড়িয়ে দিয়ে এএফসি কাপের (AFC Cup) মূলপর্বের টিকিট পেয়েছিল  জুয়ান ফেরান্দোর দল। যে কোনও টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ সবসময়েই গুরুত্বপূর্ণ। এএফসি কাপের প্রথম ম্যাচেই দুদ্দাড়িয়ে শুরু করল গোকুলাম। চার-চারটে গোল হজম করতে হল অসহায় অমরিন্দরকে। অথচ খেলার শুরু কিন্তু অন্য ইঙ্গিত দিয়েছিল। রয় কৃষ্ণ বিপজ্জনক হয়ে ধরা দিয়েছিলেন। 

[আরও পড়ুন: ভারতীয় ক্রিকেটে বড় চমক, দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজেই কোচ হচ্ছেন লক্ষ্মণ!]

শুরুতেই অন্তত দু’ গোলে এগিয়ে যেতে পারত মোহনবাগান। একবার বাঁ দিক থেকে ক্রস ঠিকমতো কানেক্ট করতে পারলেন না কৃষ্ণ। বল উড়ে গেল। ১৭ মিনিটে তাঁর প্লেস গোকুলামের পোস্টে লেগে ফিরে আসে। বিরতির আগে মোহনবাগান বড় ধাক্কা খায়। লুকা ম্যাজসেনকে ট্যাকল করতে গিয়ে চোট পান তিরি। উঠে যেতে হয় স্পেনীয় ডিফেন্ডারকে। তিরির পরিবর্তে নামেন আশুতোষ। তাঁকেও দ্বিতীয়ার্ধে তুলে নিতে বাধ্য হন ফেরান্দো। কিন্তু তিরির উঠে যাওয়া মোহনবাগানের ডিফেন্সে হাঙরের হাঁ তৈরি করে। বন্যার জল যেমন ঢুকে পড়ে ভাসিয়ে দেয় জনপদ, ঠিক তেমনই গোকুলামের একের পর এক আক্রমণ আছড়ে পড়তে থাকে সবুজ-মেরুনের রক্ষণে। সেই আক্রমণের স্রোতেই ভেসে যায় মোহনবাগান। 

Advertising
Advertising

লুকা ম্যাজসেন ৫০ মিনিটে এগিয়ে দেন গোকুলামকে। সেই গোল অবশ্য বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি কেরলের দলটি। ৫৩ মিনিটে লিস্টনের কর্নার থেকে প্রীতম কোটাল সমতা ফেরান মোহনবাগানের হয়ে। আই লিগের ‘ফাইনালে’ রিশাদ গোল করে এগিয়ে দিয়েছিলেন গোকুলামকে। এদিনও বাঁ দিক থেকে বল পেয়ে সেই রিশাদই এগিয়ে দেন গোকুলামকে।

তার পর চলে গোকুলামের একতরফা আক্রমণ। লুকা ম্যাজসেন ৬৫ মিনিটে ৩-১ করে যান। চার্চিল ব্রাদার্স থেকেই উত্থান লুকা ম্যাজসেনের। গোকুলামের জার্সি পরার আগে দ্বিতীয় ডিভিশনের দল বেঙ্গালুরু ইউনাইটেডের হয়েও খেলেন এই স্লোভেনিয়ান স্ট্রাইকার। সেখান থেকেই গোকুলামে লুকা। আই লিগে ফুল ফুটিয়েছেন। এএফসি কাপের শুরুতেই গোল পেলেন। ৮০ মিনিটে লিস্টন কোলাসো ফ্রি কিক থেকে ব্যবধান কমান। তখনও ম্যাচে ফেরার সম্ভাবনা ছিল সবুজ-মেরুনের। কিন্তু ফুটবল ঈশ্বর মনে হয় অন্যরকম কিছু ভেবে রেখেছিলেন। ৮৯ মিনিটে জিথিন ম্যাচ নিয়ে চলে যান নিজেদের ক্যাম্পে। শুরুতেই গ্রুপের বাকি দলগুলোকে গোকুলাম চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল মোহনবাগান রক্ষণের রক্তাল্পতা।  

[আরও পড়ুন: SSC দুর্নীতিতে নাম জড়ানো মন্ত্রী পরেশ অধিকারী ‘উধাও’! মেয়েকে নিয়ে নামলেন না শিয়ালদহে]

Advertisement
Next