‘ইস্টবেঙ্গল কি আমাদের সমর্থন করবে?’, মোহনবাগানের বিরুদ্ধে নামার আগে বসুন্ধরার শীর্ষকর্তার প্রশ্ন

10:34 PM May 20, 2022 |
Advertisement

কৃশানু মজুমদার: ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’র রচয়িতা আবদুল গফফর চৌধুরী বৃহস্পতিবার প্রয়াত হয়েছেন। শনিবার এএফসি কাপে মহাম্যাচ। যুবভারতীতে মোহনবাগানের (Mohun Bagan) সামনে বসুন্ধরা কিংস (Basundhara Kings)। সেই ম্যাচের আগে বা পরে কি স্মরণ করা হবে আবদুল গফফর চৌধুরীকে? গ্যালারিতে কি শোনা যাবে কিংবদন্তি গানের লাইন? শুক্রবার প্রশ্নগুলো দূরভাষে করা হয়েছিল বসুন্ধরা কিংসের প্রেসিডেন্ট ইমরুল হাসানকে। সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালকে উত্তরে তিনি বলেন, ”আমরা এই ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছি। গতকাল রাতেও এবিষয়ে কথা উঠেছিল। কিন্তু বেশি রাত হয়ে যাওয়ায় কথা আর এগোয়নি।” 

Advertisement

এএফসি কাপের (AFC Cup) প্রথম ম্যাচে মোহনবাগান হেরে গিয়েছে গোকুলামের কাছে। অন্য ম্যাচে মাজিয়াকে হারিয়েছে বাংলাদেশের শক্তিশালী ক্লাব বসুন্ধরা কিংস। ইমরুল হাসানকে প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া হল, ”আপনার ক্লাব তো ভাল খেলছে?” প্রশ্নটা শুনে হেসে ফেললেন ইমরুল। বললেন, ”ভাল আর কী খেলছে! আসল খেলা তো আগামিকাল। তখনই বোঝা যাবে।”

[আরও পড়ুন: নজরে এশিয়া কাপ ও টি-২০ বিশ্বকাপ, ফর্মে ফিরতে নিজেই বিশ্রামের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন কোহলি!]

উত্তর শেষ করেই প্রতিবেদককে পালটা প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন ইমরুল। জিজ্ঞাসা করেন, ”আচ্ছা ইস্টবেঙ্গল কি শনিবার আমাদের সমর্থন করবে?” কিছুক্ষণ থেমে তিনি নিজেই যোগ করেন, ”অবশ্য দেশের দল খেলছে, তাকে ছেড়ে ভিনদেশের কোনও ক্লাবকে কি সমর্থন করবে ইস্টবেঙ্গল?” প্রশ্নের উত্তর নিজেই খুঁজছেন ইমরুল।

Advertising
Advertising

ইনভেস্টর সমস্যার সমাধানের জন্য বসুন্ধরার সঙ্গে একসময়ে আলোচনা হয়েছে ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের। লাল-হলুদ তাঁবুতে এসেছিলেন বসুন্ধরার কর্তাব্যক্তিরা। ইস্টবেঙ্গল কর্তারাও বাংলাদেশে গিয়ে কথাবার্তা বলেছেন।কী হবে তা বলবে সময়।এএফসি কাপ খেলতে এখন কলকাতায় এসেছে বসুন্ধরা কিংস। পরের রাউন্ডের টিকিট জোগাড় করাই লক্ষ্য বসুন্ধরার। অন্য দিকে প্রথম ম্যাচে হারের ক্ষতে প্রলেপ দেওয়ার সুযোগ মোহনবাগানের সামনে। শনিবার যুবভারতীতে ধুন্ধুমার। তার আগে বসুন্ধরা কিংসের প্রেসিডেন্ট একটা প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন–বসুন্ধরা কি ইস্টবেঙ্গলের সমর্থন পাবে?  

[আরও পড়ুন: ধর্মস্থানের মিশ্র চরিত্র নতুন কিছু নয়, জ্ঞানবাপী মামলায় পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের]

Advertisement
Next