মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে কাটল জট, ইস্টবেঙ্গলের নতুন ইনভেস্টর হচ্ছে ইমামি গ্রুপ

06:26 PM May 25, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ত্রাতা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে ইনভেস্টর সমস্যা মিটে গেল ইস্টবেঙ্গলে। লাল-হলুদে ইনভেস্টর হিসাবে আসছে ইমামি গ্রুপ। বুধবার নবান্নে দু’পক্ষের সঙ্গে আলোচনার পর ইস্টবেঙ্গল এবং ইমামি গ্রপের গাঁটছড়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নিজেই।

Advertisement

বুধবার নবান্নে ইস্টবেঙ্গল এবং ইমামি গ্রুপের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। মূলত মমতার মধ্যস্থতাতেই ইস্টবেঙ্গলে বিনিয়োগ করতে রাজি হয়ে যায় ইমামি গ্রুপ। মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, “আজ দু’পক্ষই আমার এখানে চা খেতে এসেছিল। দু’পক্ষই রাজি হয়েছে। যার ফলে ইস্টবেঙ্গলের আইএসএলে (ISL) খেলার যে সমস্যা হচ্ছিল, সেই সমস্যা মিটে যাবে।” ইমামি গ্রুপকে ক্লাবে স্বাগত জানিয়েছেন ইস্টবেঙ্গল কর্তা দেবব্রত সরকার। ক্লাবের পাশে থাকার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকেও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ইস্টবেঙ্গল (East Bengal) কর্তা। তিনি বলেন,”মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করব না। শুধু ইনভেস্টর নয়, যেভাবে ক্লাবের সব কর্মকাণ্ডের সঙ্গে তিনি যুক্ত থাকেন, সেটা বাংলার আর কোনও মুখ্যমন্ত্রী ভাবেনি। আমি ইমামি গ্রুপকেও (Emami Group) ধন্যবাদ জানাব। এবং আশা করব আগামী দিনে আমাদের ক্লাব ইমামির সাহায্যে সাফল্য পাবে।”

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: কোহলি নন, ইডেনের বিরাট ম্যাচে গম্ভীরের চিন্তা ‘ম্যাড ম্যাক্সে’র ফর্ম]

শ্রী সিমেন্ট (Sree Cement) সরে যাওয়ার পরে ইনভেস্টর নিয়ে সত্যি সত্যিই সমস্যা একটা ছিল ইস্টবেঙ্গলে। একাধিক সংস্থার সঙ্গে কথাবার্তাও বলেন ক্লাব কর্তারা। বাংলাদেশের বসুন্ধরা গ্রুপের সঙ্গেও আলোচনা হয় লাল-হলুদ শীর্ষকর্তাদের। আলোচনা সারতে পদ্মাপাড়েও গিয়েছিলেন লাল-হলুদ কর্তারা। কিন্তু শেষমেশ সেই চুক্তি আর হয়নি। শেষমেশ স্পনসরের অভাবে যাতে ইস্টবেঙ্গলের আইএসএলে খেলা না আটকায়, সেটা নিশ্চিত করতে আসরে নামেন মুখ্যমন্ত্রী নিজেই। 

[আরও পড়ুন: বাউন্ডারি বাঁচিয়ে ব্যাটারের উদ্দেশে ‘কটূক্তি’ রিয়ান পরাগের! ”ভালোই করেছ” বললেন সূর্যকুমার]

মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপেই কাটল ইস্টবেঙ্গলের ইনভেস্টর জট। একপ্রকার আকস্মিকভাবেই ইস্টবেঙ্গলের ইনভেস্টর হিসাবে ইমামির আগমন ঘটল। বিনিয়োগকারীর সমস্যা মিটে যাওয়ায়  এবার জোরকদমে দলগঠনের কাজে নেমে পড়তে পারবেন ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। 

Advertisement
Next