অবনমন নিয়ে তুলকালাম আইএফএ-তে, ফেডারেশনের কমিটি থেকে পদত্যাগ অনির্বাণের

12:07 PM Sep 27, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফেডারেশনের ফুটসল কমিটির পদ ফিরিয়ে দিলেন আইএফএ (IFA) সচিব অনির্বাণ দত্ত (Anirban Dutta)। সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় (Ajit Bannerjee) অবশ্য এখনও সিদ্ধান্ত নেননি, তিনি ফেডারেশেনর ফুটসল কমিটিতে থাকবেন কি না। যদিও আইএফএ সভাপতি এদিন বললেন, ‘‘ফুটসল কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে, এখনও ফেডারেশনের চিঠি পাইনি। আগে চিঠি হাতে পাই, তারপর সিদ্ধান্ত নেব। ’’ তবে সচিব পদত্যাগ করলেও কম্পিটিশন কমিটির মিটিংয়ে যোগ দেওয়ার জন্য মঙ্গলবার দিল্লি যাচ্ছেন আইএফএর সহ-সভাপতি সৌরভ পাল।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

কিছুদিন আগে ফেডারেশনের যে বিভিন্ন সাব কমিটি তৈরি হয়, তাতে বাংলার সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফুটসল কমিটির চেয়ারম্যান করে সচিব অনির্বাণ দত্তকে সাধারণ সদস্য করা হয়। আর এতে যথেষ্ট অপমানিত বোধ করেছেন আইএফএ সচিব। প্রথমত ফেডারেশনের একটি সাব কমিটিতে আইএফএ সভাপতি, সচিব দু’জনেই আছে দেখে ফেডারেশনের অন্যান্য পদাধিকারীরা অবাক। তারমধ্যে অনির্বাণ দত্ত এদিন ফেডারেশনকে জানিয়ে দেন, ফুটসল কমিটির সদস্য হিসেবে বাংলার ফুটবলের ডেভলপমেন্টের কোনও কাজই তিনি করতে পারবেন না। কারণ, তিনি বাংলার ফুটবলের ডেভলপমেন্টের কাজ করতে চান। আর ফুটসল কমিটির সদস্য হিসেবে তা কিছুতেই করা সম্ভব নয়।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: কোভিডের ধাক্কায় ফের ছিটকে গেলেন শামি, জাতীয় দলে সুযোগ বাংলার শাহবাজের]

আইএফএর তরফে যিনি ফুটসল দেখাশোনা করেন, সেই অরূপ চক্রবর্তীকে ফেডারেশনের ফুটসল কমিটিতে নেওয়ার অনুরোধ করেছেন তিনি। এদিকে, এবারের কলকাতা লিগে অবনমন ইস্যুতে চাঁদনি ক্লাব আদালতে যাওয়ার পর ১৬টি ক্লাব একসঙ্গে চিঠি দিল আইএফএকে। আর তা নিয়েই এদিন আইএফএর মিটিংয়ে বেশ কথা কাটাকাটি হল সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় এবং চেয়ারম্যান সুব্রত দত্তর মধ্যে। বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাসও।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

এদিন আইএফএর মিটিংয়ে সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, প্রিমিয়ার ডিভশনের ‘এ’ গ্রুপের মতো অন্যান্য ডিভিশনের খেলারও অবনমন বন্ধ করতে। যদিও এর বিরোধিতা করেন সুব্রত দত্ত। কারণ, কিছুদিন আগে আইএফএর গভর্নিং বডির সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছিল, প্রিমিয়ার ডিভিশনের ‘এ’ গ্রুপ ছাড়া অন্যান্য ডিভিশনে রেলিগেশন, চ্যাম্পিয়নশিপ বহাল থাকবে। তাই সুব্রত দত্ত এদিন বলেন, ‘‘নতুন করে সিদ্ধান্ত নিতে হলে পুরো ব্যাপারটা ফের গভর্নিং বডিতেই ফেলা উচিত। আর যে লিগে চ্যাম্পিয়নশিপ-রেলিগেশন নেই, সেটা লিগ হতে পারে না।’’

এরপর অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘তাহলে শুধু অবনমন বন্ধ থাকুক।’’ তা শুনে স্বরূপ বিশ্বাস বলেন, ‘‘একটা লিগের মধ্যে এরকম আলাদা করে কোনও নিয়ম হতে পারে না। লিগের অন্যান্য ক্লাব একটা নিয়মাবলি জেনে খেলা শুরু করল। তারপর লিগের শেষে এসে অন্য নিয়ম। এভাবে হতে পারে না।’’ ঠিক হয়েছে, ২৯ সেপ্টেম্বর এই ইস্যুতে গভর্নিং বডির সভা হবে। তবে মহামেডানের পরের খেলা হবে পুজোর পর।

[আরও পড়ুন:প্রীতি ম্যাচে ভিয়েতনামের সামনে ভারত, জয়ের জন্য সুনীলের দিকেই তাকিয়ে স্টিমাচ]

Advertisement
Next