বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে নামার আগে আজ মোহনবাগানের চিন্তা আক্রমণভাগ ও চোট-আঘাত

02:15 PM Dec 03, 2022 |
Advertisement

স্টাফ রিপোর্টার: ঘরের মাঠে আইএসএলের (ISL) সবচেয়ে কঠিন ম্যাচটা জিতে ফুরফুরে থাকার কথা মোহনবাগান কোচ জুয়ান ফেরান্দোর (Juan Ferrando)। যদিও শনিবার বেঙ্গালুরু এফসির মুখোমুখি হওয়ার আগে তাঁর ভাবনা আক্রমণ নিয়ে। নিজের দলের পাশাপাশি প্রতিপক্ষের ফরোয়ার্ডদের নিয়েও ভাবতে হচ্ছে ফেরান্দোকে।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

ম্যাচের আগে সাংবাদিক সম্মেলনে স্বাভাবিকভাবেই প্রতিপক্ষ নিয়ে প্রশ্ন উড়ে এসেছিল সবুজ-মেরুন কোচের দিকে। বেঙ্গালুরু এফসির কোন কোন ফুটবলার মোহনবাগানকে চাপে ফেলতে পারেন? এক মুহূর্ত না ভেবে ফেরান্দোর জবাব, “আইএসএলের অন্যতম কঠিন প্রতিপক্ষ বেঙ্গালুরু (Bengaluru FC)। ওদের দলে গুরপ্রীত সিং সান্ধু, সুনীল ছেত্রী (Sunil Chhetri), রয় কৃষ্ণ, সন্দেশ ঝিঙ্ঘান, জাভি হার্নান্ডেজের মতো ফুটবলার আছে। আমার মতে ওরা লিগের সেরা তিনটি দলের মধ্যে পড়বে। ডুরান্ড কাপ জিতেছে। লিগে দুটো ছাড়া বাকি ম্যাচে ভালই খেলেছে। আমাদের পক্ষে ম্যাচটা সহজ হবে না।”

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: হেনস্তার হাত থেকে বাঁচিয়ে ‘হিরো’, ২ ভারতীয় যুবকের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজে তরুণী ইউটিউবার]

প্রতিপক্ষের যে পাঁচ ফুটবলারের নাম ফেরান্দো নিয়েছেন, তারমধ্যে তিনজনই আক্রমণে ঝড় তুলতে পারেন। ফলে ডিফেন্সের রোগে ভোগা দলের কোচ তাঁদের নিয়ে ভাবতে বাধ্য। সঙ্গে কোচ ফেরান্দোকে ভাবাচ্ছে নিজের দলের আক্রমণও। কারণ লিস্টন কোলাসোর অফ ফর্মের মধ্যেই চোটের তালিকায় নাম তুলেছেন মনবীর সিং। এদিন দলের সঙ্গে বেঙ্গালুরুও যাননি তিনি। তাঁর বদলি হিসাবে কিয়ান নাসিরিকে ব্যবহার করবেন ফেরান্দো। গত কয়েকদিন অনুশীলনে কিয়ানের সঙ্গে আলাদাভাবে সময় কাটাতেও দেখা গিয়েছে কোচকে। তবে বড় চেহারার মনবীরের বদলি হিসাবে কিয়ান কতটা কার্যকর হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

[আরও পড়ুন: ট্রাফিক আইন ভঙ্গের অভিযোগ, ১১ হাজার টাকা জরিমানা দিয়েও পুলিশকে হুঁশিয়ারি শুভেন্দুর]

নিজেদের শেষ ম্যাচে এফসি গোয়াকে (FC Goa) উড়িয়ে দিয়েছে বেঙ্গালুরু। যে গোয়ার কাছে ৩ গোলে হেরেছে মোহনবাগান (Mohun Bagan)। তবে সেই ম্যাচের পর হায়দরাবাদ এফসিকে হারানো আর হুগো বুমোসের গোলে ফেরা নিশ্চিতভাবেই আত্মবিশ্বাসী করবে সবুজ-মেরুন শিবিরকে। কোচ ফেরান্দো অবশ্য বলছেন, “আগের ম্যাচের ফল যাই হোক না কেন, তার একটা রেশ থেকেই যায়। তবে আমরা একটা একটা ম্যাচ ধরে পরিকল্পনা করি। ফলে আগের ম্যাচের জয় এখন আমাদের কাছে অতীত। বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে নতুন লড়াই।” ফেরান্দোকে স্বস্তি দিয়ে পুরোদমে অনুশীলন করছেন দিমিত্রি পেত্রাতোসও। শেষ ম্যাচ চোটের জন্য খেলতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ান মিডফিল্ডার। মাঝমাঠে জনি কাউকোর (Joni Kauko) অনুপস্থিতিতে দিমিত্রির প্রত্যাবর্তন শক্তি বাড়াবে মোহনবাগানের।

Advertisement
Next