কমনওয়েলথে সোনাজয়ী শুটার মানু ভাকারকে হেনস্তা, বিতর্কে এয়ার ইন্ডিয়ার দুই কর্মী

02:24 PM Feb 20, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্কে এয়ার ইন্ডিয়া (Air India)। কমনওয়েলথ গেমসে (Commonwealth Games) সোনাজয়ী পিস্তল শুটার মানু ভাকারকে (Manu Bhaker) হেনস্তা করার অভিযোগ উঠল বিমানের দুই কর্মীর বিরুদ্ধে। শুক্রবার ভোপাল (Bhopal) থেকে দিল্লি (Delhi) যাওয়ার সময়ই মানুর সঙ্গে ওই ঘটনা ঘটে। এদিন DGCA-এর অনুমতিপত্র থাকলেও বিমানে নিজের বন্দুক এবং গুলি নিয়ে উঠতে বাধা দেওয়া হয় মানুকে। দীর্ঘক্ষণ বলার পরও এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীরা তাঁকে বিমানে উঠতে দেননি। শেষপর্যন্ত আসরে নামেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু। তাঁর মধ্যস্থতায় বিমানে উঠতে সক্ষম হন মানু। তবে পরবর্তীতে এই ঘটনায় অভিযুক্তদের শাস্তির দাবি তোলেন মানু। ঘটনায় ইতিমধ্যে ক্ষমাও চেয়েছে এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

জানা গিয়েছে, শুক্রবার বিমানে ওঠার সময় পিস্তল সঙ্গে রাখার অনুমতি থাকলেও মানু ভাকারকে বাধা দেন মনোজ গুপ্ত নামে এয়ার ইন্ডিয়ার এক কর্মী। সঙ্গে ছিলেন একজন নিরাপত্তা কর্মীও। মানু তাঁকে ডিজিসিএ-র অনুমতি পত্র দেখালেও তাতে স্টাম্প এবং সই না থাকায় মনোজ তা দেখতে অস্বীকার করে। জানায়, এজন্য মানুকে ১০ হাজার ২০০ টাকা দিতে হবে। এদিকে, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে নিয়ম বদলের কারণে ডিজিসিএ-র পারমিটে এখন আর ওই স্টাম্প বা সই থাকে না। কিন্তু মনোজরা এই নিয়ম জানতেন না। তাঁরা মানুকে বিমানে উঠতে বাধা দিতে থাকেন। এরপরই তাঁর ফোন কেড়ে নিয়ে বেশ কিছু ছবিও ডিলিট করে দেন বলেও অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: দেশের হয়ে না খেলে আইপিএলে নাইটদের জার্সি গায়ে চাপাবেন শাকিব! বিতর্ক বাংলাদেশে]

পরবর্তীতে টুইট করে সমস্ত ঘটনার বিবরণ দেন মানু। এরপরই আসরে নামেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁর সহায়তাতেই বিমানে উঠতে সক্ষম হন এই পিস্তল শুটার। তবে পরবর্তীতে ওই আধিকারিকের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির দাবিও তোলেন। এরপর অবশ্য এয়ার ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে টুইট করে ঘটনার জন্য ক্ষমাও চাওয়া হয়।

Advertising
Advertising

 

[আরও পড়ুন: ‘মনে হচ্ছিল বিশ্বে আমিই সবচেয়ে একা’, অতীত যন্ত্রণার কথা ফাঁস করলেন কোহলি]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next