Advertisement

নেই অনুশীলনের ব্যবস্থা! Olympics শুরুর আগে চরম অব্যবস্থায় ভারতীয় অ্যাথলিটরা

01:05 PM Jul 22, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একদিকে, ট্রেনিংয়ের অপর্যাপ্ত বন্দোবস্ত। অন্যদিকে, করোনার (Coronavirus) আতঙ্ক। সব মিলিয়ে অলিম্পিক (Tokyo Olympics) শুরুর আটচল্লিশ ঘণ্টা আগে ভাল রকম ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ভারতীয় অ্যাথলিটদের প্রস্তুতি। ভারতের দশ মিটার এয়ার রাইফেল প্রতিযোগীরা যেমন অলিম্পিক শুরুর দু’দিন আগেও পর্যাপ্ত ট্রেনিংয়ের সুযোগ পেলেন না! মাত্র কুড়ি মিনিট প্র্যাকটিস করে আশাকা শ্যুটিং রেঞ্জ ছেড়ে দিতে হল তাঁদের। অন্যদিকে, বক্সারদের অবস্থা আরও খারাপ। তাঁদের অনুশীলন করতে হল গেমস ভিলেজেই। 

Advertisement

গন্ডগোলটা বাঁধিয়েছেন আয়োজকরাই। জানা গিয়েছে, তাঁরা ঠিক করে টাইম স্লট ভাগাভাগি করেননি টিমগুলোর মধ্যে। কে কতটা সময় ট্রেনিংয়ের জন্য পাবেন, সেটা ঠিক করে বণ্টন করা হয়নি। পরিণাম হিসেবে, মাত্র কুড়ি মিনিট ট্রেনিং করে শ্যুটিং রেঞ্জ ছেড়ে চলে যেতে হল ভারতীয় শ্যুটারদের। আধঘণ্টা ট্রেনিংয়েরও সুযোগ পেলেন না তাঁরা। প্রথমে ঠিক ছিল, বুধবার সকালে দু’আড়াই ঘণ্টার ট্রেনিংয়ের জন্য সময় পাবেন ভারতীয়রা। কিন্তু সেটা শেষ পর্যন্ত আয়োজকদের ব্যর্থতায় কমে দাঁড়ায় কুড়ি মিনিটে। অথচ শনিবারই মহিলাদের দশ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্ট। পরের দিন আবার একই ইভেন্ট ছেলেদের। তার আগে প্রস্তুতির অভাব ভোগাবে ভারতকে।

[আরও পড়ুন: Tokyo Olympics: পদকজয়ের লক্ষ্যে কখন মাঠে নামছেন সানিয়া-সিন্ধু-মেরি কমরা?]

বিপত্তিতে পড়েছেন ভারতীয় বক্সাররাও (India Boxers)। বক্সিংয়ের ট্রেনিংয়ের জন্য যে জায়গাকে বাছা হয়েছে, তা টোকিও বে’র গেমস ভিলেজ থেকে প্রায় কুড়ি কিলোমিটার দূরে। করোনার ভয়ে ভারতীয় বক্সাররা যার ফলে ভিলেজেই ট্রেনিং করবেন বলে ঠিক করে নেন। ভারতীয় বক্সিং টিমের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এত দূর গিয়ে ট্রেনিং করতে গেলে অন্যান্য লোকজনের সংস্পর্শে আসার সম্ভাবনা থাকবে। করোনা সংক্রমণের ভয় সেক্ষেত্রে যথেষ্ট থাকবে। তার চেয়ে ভাল, ভিলেজেই (Games village) ট্রেনিং করা। এমনিতেই করোনা আতঙ্কে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত অ্যাথলিটরা। তার উপর এভাবে প্রস্তুতিতে সমস্যা। সার্বিকভাবে ভারতীয় অ্যাথলিটরা অলিম্পিক শুরুর আগেই বেশ খানিকটা পিছিয়ে পড়লেন।

Advertisement
Next