Advertisement

Tokyo Paralympics: ‘তুমি দেশের গর্ব’, ফোন করে সোনার ছেলে সুমিতকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন মোদি

10:19 PM Aug 30, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রথম ভারতীয় জ্যাভলিন থ্রোয়ার হিসেবে অলিম্পিকে সোনা জিতে ইতিহাস গড়েছিলেন নীরজ চোপড়া (Neeraj Chopra)। ফের টোকিও থেকে এই ইভেন্টেই এল সোনা। প্যারালিম্পিয়ান সুমিত আন্তিল গর্বিত করলেন দেশকে। জিতলেন স্বর্ণপদক। ‘সোনার ছেলে’ সুমিতকে ফোন করে শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Modi)।

Advertisement

ফোন করে সুমিতের সঙ্গে কথা বলার সময় তাঁকে প্রশংসায় ভরিয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী। জানিয়ে দেন, সুমিত দেশকে গর্বিত করেছে। পরে প্রধানমন্ত্রী টুইট করেও সুমিতের প্রশংসা করেন। তিনি লেখেন, ”প্যারালিম্পিকে আমাদের অ্যাথলিটরা সফল হয়েই চলেছেন। সুমিত আন্তিলের প্যারালিম্পিকের রেকর্ড গড়া পারফরম্যান্সের জন্য দেশ গর্বিত। দেশকে গৌরবময় স্বর্ণপদক এনে দেওয়ার জন্য সুমিতকে অভিনন্দন। তোমাকে ভবিষ্যতের শুভ কামনা জানাই।”

[আরও পড়ুন: ‘স্ত্রী মায়ান্তিই সেরা প্রাপ্তি’, ক্রিকেটকে বিদায় জানাতেই ট্রোলড Stuart Binny]

সুমিতের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত দেশবাসী। সোশ্যাল মিডিয়ায় শুভেচ্ছার বন্যায় ভাসছেন তিনি। টুইট করে তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও (Mamata Banerjee)। হরিয়ানার সোনপতের ২৩ বছর বয়সি অ্যাথলিট সুমিতের সাফল্য সত্য়িই রূপকথাকে হার মানায়। বছর ছয়েক আগে ২০১৫ সালে মোটরবাইক দুর্ঘটনায় পড়েন তিনি। এরপর বাঁ পায়ের হাঁটুর নিচ থেকে বাদ চলে যায় তাঁর। কিন্তু শারীরিক সেই বাধাকে অতিক্রম করে কেবল সোনাই জিতলেন না তিনি। পঞ্চমবারের চেষ্টায় ৬৮.৫৫ মিটার দূরত্বে জ্যাভলিন ছুঁড়ে গড়লেন বিশ্বরেকর্ডও। যদিও তাঁর নিজের দাবি, তিনি এর থেকেও সেরা পারফরম্যান্স করার ক্ষমতা রাখেন।

[আরও পড়ুন: Paralympics 2020: অভিনব বিন্দ্রাই আইডল, সব বাধা টপকে তাঁরই রেকর্ড স্পর্শ সোনার মেয়ে অবনীর]

চলতি প্যারালিম্পিকে (Tokyo Paralympics) দুর্দান্ত ফর্মে ভারতীয় অ্যাথলিটরা। ইতিমধ্যেই শুটিংয়ে সোনা জিতে নজির গড়েছেন অবনী লেখারা। এবার পুরুষদের জ্যাভলিন (F64) ইভেন্টে বিশ্বের বাকি অ্যাথলিটদের পিছনে ফেলে এক নম্বর হয়ে গেলেন সুমিত।
উল্লেখ্য, রবিবার প্যারালিম্পিকে দেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন ভবিনা প্যাটেল। টেবিল টেনিসে দেশকে রুপো এনে দেন ওই তরুণী। তাঁকেও ফোন করে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

Advertisement
Next