ইউক্রেনের পরমাণু কেন্দ্রে রকেট হামলা রাশিয়ার, মৃত কমপক্ষে ১৩

09:16 AM Aug 11, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইউক্রেনের জাপরজাই পরমাণু কেন্দ্রে রকেট হামাল রাশিয়ার। বুধবার কিয়েভ অভিযোগ জানায়, পরমাণু চুল্লির একেবারে কাছে আছড়ে পড়ে একের পর এক রুশ রকেট। এ ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ১৩ জন সাধারণ মনুষের। জখম অন্তত ১১ জন।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

ফেব্রুয়ারির ২৪ তারিখ ইউক্রেনে (Ukraine) ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরু করে রাশিয়া। আর মার্চেই জাপরজাই পরমাণু কেন্দ্রটি দখল করে পুতিন বাহিনী। তবে পরমাণু কেন্দ্রটির নিয়ন্ত্রণ মস্কোর হাতে গেলেও সেটি চালাচ্ছে ইউক্রেনের শক্তি সংস্থা ‘Energoatom’। রাশিয়ার আণবিক সংস্থা ‘Rosatom’-এর অধীনে কাজ করছেন ইউক্রেনীয় কর্মীরা। পরমাণু কেন্দ্রের কর্মীরা জানিয়েছেন, কিছুদিন আগে যে ক্ষেপণাস্ত্র হামলাটি হয়েছিল, সেটি হওয়ার ঠিক আগে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন রুশ কর্মীরা। অতএব তাঁরা জানতেন। কিয়েভের অভিযোগ, আণবিক কেন্দ্রটিকে অধিকৃত ক্রাইমিয়ার পাওয়ার গ্রিডের সঙ্গে জুড়তে চাইছে মস্কো। শুধু তাই নয়, নাইপার নদীর কাছে অবস্থিত জাপরজাই পরমাণু কেন্দ্রটিতে অস্ত্রশস্ত্র মজুত করেছে পুতিন বাহিনী বলেও দাবি করেছে ইউক্রেন।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: ইউক্রেনে হতাহত কত রুশ সেনা? চাঞ্চল্যকর দাবি পেন্টাগনের]

এহেন পরিস্থিতিতে জাপরজাইয়ের আঞ্চলিক প্রধান ভ্যালেন্টিন রেজনিচেঙ্কো জানিয়েছেন, ওই এলাকায় মোট ৮০টি রকেট হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। স্থানীয় বাসিন্দাদের উদ্দেশে তাঁর বার্তা, সাইরেন শুনলেই যেন সকলে ঘরের ভিতর ঢুকে যান। রেজনিচেঙ্কো লিখেছেন, “একটা ভয়ানক রাত ছিল। আমি সকলকে বলছি, সকলের কাছে আরজি জানাচ্ছি, রুশদের হাত থেকে নিজেকে বাঁচান।” সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি ঘটেছে মারগানেটস শহরে। পরমাণু কেন্দ্রটির কাছেই এই শহর। হামলায় ক্ষয়ক্ষতি তো হয়েছেই, একের পর এক এলাকা অন্ধকারে ডুবে গিয়েছে।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

এদিকে, কাজাখস্তান থেকে ইরানের একটি কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করেছে রাশিয়া (Russia)। মনে করা হচ্ছে, ইউক্রেনের উপরে নজরদারি চালাতে এটিকে ব্যবহার করা হবে। জানা গিয়েছে, বৈকানুর উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে সয়ুজ রকেটে চেপে খৈয়াম নামের এই কৃত্রিম উপগ্রহ পাড়ি দিয়েছে পৃথিবীর কক্ষপথে।

বলে রাখা ভাল, জাপরজাই পরমাণু কেন্দ্রে যেভাবে পরপর মিসাইল হামলা হয়েছে তাতে যে কোনও মুহূর্তে ভয়াবহ বিপর্যয় ঘটে যেতে পারে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আনলে হিরোশিমা ও নাগাসাকির সেই দৃশ্য ফের ইউক্রেনের বুকে ফুটে উঠতে পারে। উল্লেখ্য, এহেন পরিস্থিতিতে আসরে নেমেছেন রাষ্ট্রসংঘের প্রধান অ্যান্তনিও গুতেরেস। তাঁর সাফ কথা, “আণবিক কেন্দ্রের হামলা চালানো আত্মহইত্যার শামিল।” সোমবার জাপরজাই পরমাণু কেন্দ্রে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ দলের তদন্তের দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: শরিফ সরকারের রোষানলে ইমরান ঘনিষ্ঠ চ্যানেল! ‘দেশবিরোধী’ তকমায় বন্ধ সম্প্রচার]

Advertisement
Next