সিঁড়ি দিয়ে গড়িয়ে পড়ে পোশাকেই মলত্যাগ পুতিনের! তুঙ্গে গুঞ্জন

01:34 PM Dec 03, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের (Vladimir Putin) শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে গুঞ্জন চলছে বেশ কয়েক মাস ধরেই। এবার সামনে এল এক দুর্ঘটনার কথা। জানা গিয়েছে, পুতিন নাকি তাঁর বাসভবনের সিঁড়ি দিয়ে গড়িয়ে পড়ে গিয়েছেন। যার ধাক্কায় অনিচ্ছাকৃত ভাবে মলত্যাগও করে ফেলেন তিনি। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘মিররে’র দাবি তেমনই। তাদের দাবি, অন্ত্রের ক্যানসারে (Cancer) ভুগছেন ৭০ বছরের রাষ্ট্রনায়ক। আর সেই কারণেই এই ধরনের পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে তাঁকে।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

ঠিক কী হয়েছিল? জানা গিয়েছে, সিঁড়ি দিয়ে নামতে গিয়ে আচমকাই পা পিছলে পড়ে যান পুতিন। বেশ কয়েক ধাপ গড়িয়ে নিচে নামেন তিনি। এর ধাক্কায় অনিচ্ছাকৃত মলত্যাগ করে পোশাকও নোংরা করে ফেলেন। দ্রুত নিরাপত্তাকর্মীরা এসে তাঁকে একটি সোফায় বসান। পরে তাঁদের সহায়তায় শৌচাগারে গিয়ে পরিষ্কার হয়ে আসেন পুতিন।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: এক মাস আগেই ৯/১১ হামলার কথা জানতেন বুশ!]

‘জেনারেল এসভিআর’ নামের রুশ (Russia) টেলিগ্রাম চ্যানেলে এমনই দাবি করা হয়েছে। তাদের দাবি, পুতিন একাধিক শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন। এর মধ্যে ক্যানসারের মতো মারণ অসুখও রয়েছে। এদিকে এদিন সিঁড়ি দিয়ে পড়ে গিয়ে নাকি কক্সিস অর্থাৎ পায়ুর হাড়ে চোট পেয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। তবে এরপরও নাকি তিনি তরুণ বিজ্ঞানীদের একটি কনফারেন্সে গিয়ে ভাষণ দেন।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

পুতিনের শারীরিক সমস্যা সংক্রান্ত নানা গুঞ্জনের কথা শোনা গিয়েছে বেশ কয়েক মাস ধরেই। বিশেষত রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার পর থেকেই পশ্চিমি মিডিয়াগুলিকে এমন দাবি করতে দেখা গিয়েছে। বলা হচ্ছে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের আয়ু বাকি আর বড়জোর তিন বছর! দুরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত পুতিনের দৃষ্টিশক্তিও নাকি ক্রমে দুর্বল হয়ে আসছে। যদিও সব গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছে ক্রেমলিন। সিঁড়ি দিয়ে পড়ে যাওয়ার দাবি ঘিরেও একই মত রুশ প্রশাসনের। তারা জানিয়েছে, এই দাবির কোনও সত্যতা নেই।

[আরও পড়ুন: ইউরোপ জুড়ে ইউক্রেনের দূতাবাসে ‘রক্তমাখা বাক্স’, রহস্যভেদে মরিয়া কিয়েভ]

Advertisement
Next