শুধুমাত্র জ্বালানি সরবরাহেই শ্রীলঙ্কায় চিনা জাহাজ, ভারতের উদ্বেগের মাঝে বার্তা দ্বীপরাষ্ট্রের

07:26 PM Aug 02, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার (Sri Lanka) উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিল একটি চিনা জাহাজ। ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে এই ঘটনার দিকে নজর রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছিল ভারত। বিতর্ক তৈরি হওয়ার আবহে দ্বীপরাষ্ট্রের তরফে জানানো হল, কেবলমাত্র জ্বালানি সরবরহ করতেই হাম্বানটোটা বন্দরে আসবে চিনা জাহাজ (Chinese Ship)। প্রতিবেশী দেশগুলির মধ্যে যেন অশান্তি তৈরি না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার ক্যাবিনেট মন্ত্রী বান্দুলা গুণবর্ধনে।

Advertisement

চিনা সহায়তাতেই তৈরি হয়েছিল হাম্বানটোটা বন্দর। সেই জায়গাতেই ফের চিনা জাহাজের আনাগোনা হওয়ায় সতর্কতামূলক বার্তা দেওয়া হয়েছিল ভারতের তরফে। বিদেশমন্ত্রক জানিয়ে দিয়েছিল,”দেশের নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক স্বার্থে প্রভাব ফেলতে পারে যে বিষয়গুলি সেগুলির দিকে সব সময় নজর রেখে চলে সরকার।” প্রাথমিকভাবে সেদেশে চিনা জাহাজের আগমনের কথা অস্বীকার করেছিল দ্বীপরাষ্ট্র। কিন্তু বিতর্ক বাড়তে থাকায় বিবৃতি দিল শ্রীলঙ্কা সরকার। জানা গিয়েছে, ১১ আগস্ট শ্রীলঙ্কায় আসতে পারে চিনা জাহাজ।

[আরও পড়ুন: পাকিস্তানে বন্যাত্রাণে গিয়ে ভেঙে পড়ল সামরিক কপ্টার, মৃত্যু ছয় সেনা অফিসারের]

গুণবর্ধনে জানিয়েছেন, “শুধুমাত্র জ্বালানি দিতে আসবে চিনা জাহাজ। এর পিছনে অন্য কোনও উদ্দেশ্যে নেই। আমাদের প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমসিংহে জানিয়েছেন, কূটনৈতিক ভাবে সকল দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হবে। দুই দেশের মধ্যে যেন অস্থিরতা তৈরি না হয়, সেদিকে নজর রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।” নাম না করে ভারত এবং চিনকে শান্তি বজায় রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে বলেই অনুমান বিশেষজ্ঞদের।

Advertising
Advertising

বিপুল পরিমাণে বিদেশি ঋণ নেওয়ার ফলেই আর্থিক বিপর্যয়ের (Sri Lanka Crisis) মধ্যে পড়েছে শ্রীলঙ্কা। এই ঋণের একটা বড় অংশ চিনের থেকে নেওয়া হয়েছিল। অন্যদিকে দ্বীপরাষ্ট্রে আর্থিক সংকট শুরু হওয়ার পর থেকেই লাগাতার সাহায্য পাঠানো হয়েছে ভারতের তরফ থেকে। নানা সহায়তার উপরে ভর করেই ঘুরে দাঁড়াতে চাইছে শ্রীলঙ্কা। এহেন পরিস্থিতিতে চিনা জাহাজের আগমন ঘিরে স্বাভাবিক ভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। আগামী দিনে চিন-শ্রীলঙ্কা সম্পর্ক কোন দিকে মোড় নেয়, সেদিকে কড়া নজর রাখবে ভারত।

[আরও পড়ুন: ঘটেনি কোনও বিস্ফোরণ, গোপন ক্ষেপণাস্ত্রেই খতম জওয়াহিরি! কীভাবে হল লক্ষ্যভেদ?]

Advertisement
Next