আমেরিকার মদতে করোনা ভাইরাস তৈরি করে চিন! চাঞ্চল্যকর দাবি সেই ইউহান ল্যাবের বিজ্ঞানীর

02:32 PM Dec 05, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিডিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মানুষের তৈরি! আমেরিকার মদতেই এই কাজ করেছে চিন! এমনটাই বিস্ফোরক দাবি করেছেন ইউহান শহরের বিতর্কিত গবেষণাগারের এক প্রাক্তন বিজ্ঞানী। তাঁর এই মন্তব্যের পর তুঙ্গে জল্পনা। অনেকেরই দাবি, জৈব অস্ত্র হিসেবে ওই আণুবীক্ষণিক জীবগুলিকে তৈরি করেছে লালফৌজ।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

২০১৯ সালের শেষের দিকে ইউহানে প্রথম করোনা ভাইরাসের দেখা মিলে। তার পরের বছর থেকেই বিশ্বজুড়ে শুরু হয় করোনার (Corona Virus) মৃত্যুমিছিল। মহামারীর দাপটে রীতিমতো বেকায়দায় পড়ে আমেরিকার মতো উন্নত দেশগুলিও। আর ওই মারণ ভাইরাসটি চিনের ‘ইউহান ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি’ (Wuhan Institute of Virology) থেকেই ছড়ায় বলে অভিযোগ করে ওয়াশিংটন। এহেন পরিস্থিতিতে ২০২১ সালে ‘বিজ্ঞানে অবদানের জন্য’ বিতর্কিত প্রতিষ্ঠানটিকে সর্বোচ্চ সম্মানের জন্য মনোনীত করেছিল চিন।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: ‘নীতি পুলিশ’ তুলে দিল ইরান, হিজাব বিদ্রোহে নতিস্বীকার খামেনেই প্রশাসনের!]

এই মহামারীর উৎস নিয়ে ব্রিটিশ সংবাদপত্র ‘দ্য সান’-এ মুখ খুলেছেন ইউহান শহরের বিতর্কিত গবেষণাগারটির প্রাক্তন বিজ্ঞানী অ্যান্ড্রু হাফ। আমেরিকার বাসিন্দা ওই গবেষকের দাবি, করোনা ভাইরাস চিনের ‘ইউহান ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি’ থেকেই ছড়ায়। কোনওভাবে ল্যাব থেকে মানুষের তৈরি ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে। নিজের বই ‘The Truth About Wuhan’-এ বিজ্ঞানী অ্যান্ড্রু হাফ দাবি করেছেন, চিনকে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত গবেষণার জন্য টাকা দেয় আমেরিকা। তাঁর কথায়, “এটা (করোনা) মানুষের তৈরি তা প্রথম দিন থেকেই জানত চিন। আর এহেন ভয়ানক জৈবিক উপাদান চিনের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য আমেরিকা দায়ি।” অ্যান্ড্রু হাফ আরও দাবি করেছেন, প্রায় দশ বছর ধরে ইউহান গবেষণাগারের সঙ্গে করোনা সংক্রান্ত গবেষণা চালাচ্ছে আমেরিকার সরকারি সংস্থা ‘National Institutes of Health’। 

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

উল্লেখ্য, করোনার উৎস যে চিন সেই বিষয়ে বারবার সরব হয়েছে আমেরিকা। প্রাক্তন মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পেও আর একধাপ এগিয়ে অভিযোগ করেছিলেন যে চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মি (PLA) ইউহানের ল্যাবরেটরির কাজে যুক্ত। তারা মুখে বলে, নাগরিকদের জন্য গবেষণার কাজ করে। তবে এর অন্দরে লালফৌজের গোপন কাজকর্ম হয়। কিন্তু হাফের নতুন দাবিতে এবার প্রশ্নের মুখে পড়েছে আমেরিকাও।

[আরও পড়ুন: দেশের বিষয়ে নাক গলাচ্ছে চিন, ‘চায়না গো হোম’ আন্দোলনের ডাক শ্রীলঙ্কা সাংসদের]

Advertisement
Next