কেন ছুরিবিদ্ধ হলেন সলমন রুশদি, হামলাকারী সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর তথ্য পেল পুলিশ

01:46 PM Aug 13, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিউ ইয়র্কে ভাষণ দিতে গিয়ে হামলার মুখে পড়েছেন বুকারজয়ী সাহিত্যিক সলমন রুশদি (Salman Rushdie)। ভেন্টিলেশনে রয়েছেন তিনি। বেশ কয়েক ঘণ্টা ধরে চলা অস্ত্রোপচারে সাড়া দিলেও তাঁর একটি চোখ নষ্ট হয়ে যেতে পারে বলেই মনে করছেন চিকিৎসকরা। শুক্রবার হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে তার নাম হাদি মাতার। বয়স ২৪। সে নিউ জার্সির বাসিন্দা। শুক্রবার সন্ধ্যায় সে ছুরি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল সলমনের উপরে।

Advertisement

স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠছে কে এই হাদি মাতার? কেন সে এই হামলা চালাল? এখনও পর্যন্ত তার সম্পর্কে যে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে তা হল-

[আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রী হলে বিদ্যুতের বিলে ছাড়, কেজরির পথে হেঁটেই ঘোষণা ঋষি সুনাকের]

প্রাথমিক ভাবে হামলাকারীর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখে মনে করা হচ্ছে সে শিয়া চরমপন্থী। ইরানের ইসলামিক রেভিলিউশনারি গার্ড তথা IRGC-রও সমর্থক সে। তবে তার সঙ্গে IRGC-র কোনও সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে কিনা তা এখনও জানা যায়নি। কিন্তু তার ফোনের মেসেজিং অ্যাপে ইরানের কমান্ডার কাসিম সুলেমানির ছবি পাওয়া গিয়েছে। ২০২০ সালে খুন হয়েছিলেন সুলেমানি।

Advertising
Advertising

জানা গিয়েছে, রুশদি বক্তৃতা দিতে শুরু করার ঠিক আগে সে লাফিয়ে মঞ্চে উঠেছিল। দ্রুত সে এগিয়ে গিয়ে পরপর ছুরির কোপ বসাতে থাকে। অতর্কিত এই হামলায় সবাই হতবাক হয়ে যান। তার ছুরির আঘাতে আহত হন রুশদির সাক্ষাৎকারী হেনরি রিসেও।

নিউ জার্সির ফেয়ারভিউয়ের বাসিন্দা হাদি মাতার কোন দেশের বাসিন্দা তা এখনও জানা যায়নি। তার কোনও ক্রিমিনাল রেকর্ড ছিল কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে তাও। কাদের হয়ে এই হামলা চালাল মাতার? পুলিশের ধারণা, সে একাই এই ‘কাজ’ করছিল। মঞ্চে একটি ব্যাকপ্যাক পাওয়া গিয়েছে। পাওয়া গিয়েছে ইলেকট্রনিক সরঞ্জামও। সব খতিয়ে দেখলে বিষয়টি সম্পর্কে আরও বিশদ তথ্য পাওয়া যাবে বলেই ধারণা ওয়াকিবহাল মহলের।

[আরও পড়ুন: কাবুলে আত্মঘাতী হামলায় নিহত তালিবানের ধর্মীয় গুরু হাক্কানি]

Advertisement
Next