জ্বালানি মূল্যে রেকর্ড বৃদ্ধি পাকিস্তানে, শাহবাজকে তোপ দেগে ফের মোদির প্রশংসায় ইমরান

01:36 PM May 27, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আবারও ভারতের প্রশংসা পাকিস্তানের (Pakistan) প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরানের (Imran Khan) মুখে। কয়েকদিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (PM Narendra Modi) প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। এবার ফের পাকিস্তানি মুদ্রায় লিটার প্রতি পেট্রল ও ডিজেলের মূল্য ৩০ টাকা বাড়ায় ভারতের প্রশস্তি গেয়ে শাহবাজ শরিফের সরকারকে ‘অসংবেদনশীল সরকার’ বলে তোপ দাগলেন ইমরান।

Advertisement

টুইটারে তিনি সাফ দাবি করেছেন, ‘বিদেশি’ সরকারের বশ্যতা স্বীকার করাই মূল্য চোকাতে হচ্ছে শাহবাজ সরকারকে। একদিনের এই মূল্যবৃদ্ধি পাকিস্তানের সর্বকালীন রেকর্ড বলেই দাবি ইমরানের। পাশাপাশি ভারতের উদাহরণ টেনে তিনি জানান, নয়াদিল্লি আমেরিকার ‘কৌশলগত মিত্র দেশ’ হলেও ভারত কিন্তু রাশিয়ার থেকে সস্তায় তেল কিনে জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির মোকাবিলা করতে পেরেছে। এর আগেও বারবার তিনি দাবি করেছেন, পাকিস্তানের প্রশাসন আসলে আমেরিকার নির্দেশ মেনে চলে। এমনকী, তাঁকে গদি থেকে সরানোর পিছনেও ওয়াশিংটনকে কাঠগড়ায় তুলতে দেখা গিয়েছিল ইমরানকে।

[আরও পড়ুন: পাটুলি থেকে উদ্ধার বিদিশার ‘বান্ধবী’ মঞ্জুষা নিয়োগীর ঝুলন্ত দেহ, মৃত্যু ঘিরে ঘনীভূত রহস্য]

এর আগেও ইমরানকে একই দাবি করতে দেখা গিয়েছে। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছিলেন, “আমাদের কাছে আম পাকিস্তানবাসীর স্বার্থই ছিল প্রধান। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত স্থানীয় মীরজাফর এবং মীর সাদিকরা বিদেশি শক্তির কাছে মাথা নত করে ফেলল। আর এখন মস্তকহীন মোরগের মত এদিক ওদিক করে চলেছে। এভাবেই দেশের অর্থনীতিকে খাদের ধারে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে।” সেই একই সুর বজায় রেখে নয়া পাক প্রশাসনকে চাপ দেওয়ার কৌশল অব্যাহত রাখলেন ইমরান।

Advertising
Advertising

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ‘দ্য ডন’-এর সূত্রে জানা যাচ্ছে, ইসলামাবাদে এই মুহূর্তে পেট্রল, ডিজেল ও কেরোসিনের লিটার প্রতি মূল্য পাকিস্তানি মুদ্রায় যথাক্রমে ১৭৯.৮৬ টাকা, ১৭৪.১৫ টাকা, ১৫৫.৫৬ টাকা। কেন এই মূল্যবৃদ্ধি? দেশের অর্থমন্ত্রী মিফতাহ ইসমাইল সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন, এছাড়া কোনও উপায় ছিল না সরকারের কাছে। যদিও তাঁর দাবি, এখনও ডিজেলের মূল্যে লিটারপিছু ৫৬ পাকিস্তানি টাকা ক্ষতি স্বীকার করতে হচ্ছে পাকিস্তান সরকারকে।

[আরও পড়ুন: শুক্রবার সিবিআই দপ্তরে হাজিরা দিচ্ছেন না TMC বিধায়ক শওকত মোল্লা, চাইলেন ১৫ দিন সময়]

এদিকে পাকিস্তানে আগামী ৬ দিনের মধ্যেই নির্বাচনের দিন ঘোষণা করতে হবে, এমনই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইমরান। বৃহস্পতিবার সকালে আজাদি মিছিলে যোগ দিতে ইসলামাবাদে আসেন ইমরান। বুধবার থেকেই ইমরানের সভা নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল পাকিস্তানে।

Advertisement
Next