আরও ভয়ংকর হচ্ছে যুদ্ধ, রাশিয়াকে ‘সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র’ঘোষণার দাবি জেলেনস্কির

08:49 AM Jul 30, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কিছুতেই থামছে না যুদ্ধ। ক্রমে আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করছে এই সংঘাত। এহেন পরিস্থিতিতে রাশিয়াকে ‘সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র’ ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। বিশেষ করে, আমেরিকার কাছে মস্কোর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

শুক্রবার রাতে এক ভিডিও বার্তায় জেলেনস্কি বলেন, “রাশিয়ার জেলে বন্দিমৃত্যুর বেশ কয়েকটি ঘটনা এটা স্পষ্ট করে দেয় যে সেখানে কীভাবে সন্ত্রাস চলছে। এতেই স্পষ্ট যে রাশিয়া একটি সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র। এই বিষয়ে আমি বিশেষ করে আমেরিকার কাছে আবেদন জানাচ্ছি। এক্ষেত্রে দ্রুত পদক্ষেপের প্রয়োজন রয়েছে।” বলে রাখা ভাল, রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরও কঠিন অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার দাবি জানাচ্ছেন জেলেনস্কি। তাঁর বক্তব্য, ইউরোপ যদি রাশিয়া থেকে গ্যাস ও তেল আমদানি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ না করে তাহলে পুতিনের হাতে লড়াই চালানোর মতো টাকার জোগান অব্যাহত থাকবে।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: ‘আগুন নিয়ে খেলবেন না’, তাইওয়ান ইস্যুতে সরাসরি বাইডেনকে হুমকি জিনপিংয়ের]

এদিকে, ফের ইউক্রেনে মিসাইল হামলা চালিয়েছে রাশিয়া (Russia)। মধ্য ইউক্রেনের ক্রোপেভেনেৎসকি শহরে বৃহস্পতিবার ঘটেছে এই হামলা। স্থানীয় গভর্নর আন্দ্রেই রাইকোভিচ জানিয়েছেন, ক্ষেপণাস্ত্র হানার মূল লক্ষ্য ছিল ইউক্রেনের জাতীয় উড়ান সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ বিশ্ববিদ্যালয়ের এয়ার হ্যাঙ্গারগুলি। ওই হামলায় মৃত্যু হয়েছে অন্যয় পাঁচজনের। রাজধানী কিভের বাইরেও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে পুতিন বাহিনী। পাশাপাশি, সোভিয়েত যুগের পরিচিত কয়লাক্ষেত্র ও বর্তমানে ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র ভুহলেহার্স্ক দখল করে নিয়েছে রাশিয়া।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

উল্লেখ্য, ফেব্রুয়ারির ২৪ তারিখ ইউক্রেনে (Ukraine) ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরু করে রাশিয়া। কিন্তু এখনও কিয়েভ দখল করতে পারেনি তারা। লড়াইয়ে কয়েক হাজার সেনা ও বিপুল অস্ত্র খুইয়ে গত এপ্রিলে সামরিক অভিযানের প্রথম পর্বে ইতি টানার কথা ঘোষণা করে রাশিয়া। পাশাপাশি, মারিওপোল ও দোনবাস অঞ্চলে অভিযান তীব্র করে তোলে পুতিনের বাহিনী। ইতিমধ্যে মারিওপোল দখল করে ফেলেছে রুশ ফৌজ।

[আরও পড়ুন: ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে হারছেন ঋষি, নিজেই জানালেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত]

Advertisement
Next