Advertisement

‘বেশি খেলতে যেও না, শীতলকুচির খেলা খেলে দেব’, দিলীপের পর বিতর্কে সায়ন্তন

12:02 PM Apr 12, 2021 |
Advertisement
Advertisement

শান্তনু কর: ”বেশি খেলা খেলতে যেও না, শীতলকুচির খেলা খেলে দেব।” বক্তা আর কেউ নন, বিজেপির রাজ্য সম্পাদক সায়ন্তন বসু। চতুর্থ দফার ভোটে শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চারজনের মৃত্যুর ঘটনায় এখনও উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। ঘটনার দায় কার? সেই নিয়েই চলছে তর্ক-বিতর্ক। এই পরিস্থিতিতে ফের এমনই বিতর্কিত মন্তব্য সায়ন্তনের।

Advertisement

পঞ্চম দফা নির্বাচনের (WB Elections 2021) আগে শেষ রবিবারের প্রচারে বিজেপি প্রার্থী (BJP Candidate) বিষ্ণুপদ রায়ের সমর্থনে ধূপগুড়িতে রোড শো করেন সায়ন্তন। এরপরই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ”আমি সায়ন্তন বসু বলে যাচ্ছি। বেশি খেলা খেলতে যেও না, শীতলকুচির খেলা খেলে দেব।” এরপরই তাঁর সংযোজন, “সকাল বেলা প্রথমবার ভোট দিতে যাওয়া আনন্দ বর্মনকে মেরে দিল। বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি, ৪ ঘণ্টার মধ্যেই চারটেকে রাস্তা দেখিয়ে দেওয়া হয়েছে।” তারপর আবার বিখ্যাত ‘শোলে’ সিনেমার ডায়লগ টেনে তিনি বলেন, ‘এক মারোগে তো চার মারেঙ্গে, শীতলকুচিতেও তাই হয়েছে।’ আর সায়ন্তনের এই বক্তব্য সামনে আসতেই দেখা দিয়েছে তীব্র বিতর্ক। তাঁর এই ধরনের বক্তব্যের তীব্র বিরোধিতাও করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। এছাড়া এর মধ্যেই আবার ২০১৯ সালে সায়ন্তনের একটি পুরনো ভিডিও ভাইরালও হয়ে যায়। যেখানে দেখা যাচ্ছে, কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বুক লক্ষ্য করে গুলি চালাতে নির্দেশ দিচ্ছেন তিনি। সেই নিয়েই আরেক দফা চাপানউতোর তৈরি হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘কোনওদিন মা বলে ডাকবে না?’ ছেলে আনন্দর শোকে বারবার জ্ঞান হারাচ্ছেন বাসন্তী দেবী]

এর আগে শনিবার শীতলকুচি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ। বরাহনগরের সভা থেকে হুমকির সুরে দিলীপ ঘোষ বলেন, “সকলে ভোট দিতে যাবেন। কেউ যদি বাধা দেয়, কোনও কথা শুনবেন না। আমরা সব দেখে নেব। মাথায় রাখবেন কেউ বাড়াবাড়ি করলে জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে।” বিজেপি সাংসদের এই মন্তব্যে স্বাভাবিকভাবেই বিতর্কের ঝড় ওঠে। দিলীপ ঘোষের এহেন আচরণের তীব্র নিন্দা করেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

[আরও পড়ুন: প্রচারে বেরিয়ে আচমকাই সংজ্ঞাহীন জামুড়িয়ার তৃণমূল প্রার্থী, ভরতি হাসপাতালে]

Advertisement
Next