বনকর্মীর গুলিতে মৃত্যু মহারাষ্ট্রের নরখাদক চিতাবাঘের, হতাশ পশুপ্রেমীরা

10:28 AM Dec 19, 2020 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মহারাষ্ট্রের নরখাদক চিতাবাঘকে (Leopard) গুলি করে হত্যা করল বনদপ্তর। এই ঘটনার সাক্ষী মহারাষ্ট্রের সোলাপুর। চিতাবাঘ মৃত্যুর ঘটনায় হতাশ পশুপ্রেমীরা।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

সোলাপুরের কারমালা তেহসিলেন বিতারগাও গ্রামে একটি কলাবাগানের মধ্যে ছিল চিতাবাঘটি। সেখানেই গুলি করে তাকে মারা হয়। বনদপ্তরের (Forest Department) নিযুক্ত এক শিকারি তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। ডিভিশনাল কনজারভেটর অফ ফরেস্ট (সোলাপুর) ধৈর্যশালী পাতিল জানান, চিতাবাঘটি সোলাপুর, বীর, আহমেদনগর ও ঔরঙ্গাবাদ মিলিয়ে অন্তত ৮ জন মানুষ হত্যা করেছে। তাদের খুবলে খেয়েছে। এছাড়াও এই সমস্ত জায়গায় চিতাবাঘের হামলায় জখম অন্তত ৪ জন। শুক্রবার সন্ধেয় চিতাবাঘটিকে কলাবাগানে দেখা যায়। খবর পেয়ে প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই সেখানে পৌঁছন বনকর্মীরা। ঘুমপাড়ানি গুলি চালিয়ে তাকে ধরতে চেয়েছিলেন তাঁরা। তবে কোনওভাবেই তাকে ঘুমপাড়ানি গুলিতে শান্ত করা যায়নি। এরপর প্রায় বাধ্য হয়ে তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে হয়। আর তাতেই মৃত্যু হয় চিতাবাঘের।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: বাংলা সফরে কোন কোন মন্দিরে পুজো দেবেন বিজেপি নেতারা? তৈরি হচ্ছে তালিকা]

কারমালাতে বছর নয়েকের এক শিশুকে হত্যা করেছিল ওই চিতাবাঘটি। তারপর ডিসেম্বরের শুরুতেই চিতাবাঘটিকে হত্যা করার নির্দেশিকাই জারি করে বনদপ্তর। গত ১৫ দিন ধরে বনদপ্তরের আধিকারিক এবং পুলিশ মিলে তাকে চিহ্নিত করার কাজ চলে। অবশেষে শুক্রবারই তাকে হত্যা করা সম্ভব হয়েছে। পশুপ্রেমীরা এই ঘটনার পর থেকে হতাশ। তবে আতঙ্কমুক্ত হতে পারায় কার্যত হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন স্থানীয়রা।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ‘ওরা বলেছিল অনার কিলিং’, হাথরাস কাণ্ডের চার্জশিট দেখে ন্যায়ের আশায় গোটা পরিবার]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next