Advertisement

সঙ্গমে বিশ্বসেরা গ্রিস, জানেন ভারতের কি হাল?

08:41 PM Sep 10, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যৌনতা ব্যাপারটা এখনও এদেশে ট্যাবু। খোলাখুলি যৌনতা নিয়ে কথা বলতে গেলে, দুবার ভাবেন এ দেশের বহুমানুষ। বিতর্ক ওঠার ভয়ে, লুকিয়ে রাখেন যৌনতা নিয়ে মনে জমে থাকা নানা প্রশ্নও। এদিকে দেখুন, কামসূত্রের জন্ম তো এদেশেই! আর সেই দেশেই যদি সেক্স বিষয়টা লুকোছাপা হয়ে থেকে যায়, তাহলে কেমন লাগে বলুন তো! তবে হতাশার এখানেই শেষ নয়। যদি শোনেন, সঙ্গমে ভারতকে হারিয়ে দিয়েছে গ্রিসের মানুষ, তাহলে?

Advertisement

হ্য়াঁ, এমনটা ঘটেছে। সম্প্রতি এক কন্ডোম প্রস্তুতকারক সংস্থার তরফ থেকে একটি সমীক্ষা করা হয়েছে। যেখানে প্রায় ২৬ টি দেশের তিরিশ হাজার মানুষের সঙ্গে কথা বলা হয়। তার ভিত্তিতে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, গোটা বিশ্বের মধ্য়ে সঙ্গমে (Physical Intimacy) বিশ্বসেরা দেশ হল গ্রিস! তথ্য অনুযায়ী, গ্রিসের ৮৭ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ সপ্তাহে অন্তত এক বার সঙ্গমে লিপ্ত হয়। তথ্য অনুযায়ী, এই সংখ্যা অন্য দেশের তুলনায় অনেকটাই বেশি।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

এই সমীক্ষা অনুযায়ী, ভারতে ৯৫ শতাংশ মানুষই কন্ডোম ছাড়া সঙ্গমে লিপ্ত হতে পছন্দ করেন। শুধু তাই নয়, সেক্স নিয়ে এখনও বেশ ছুতমার্গ রয়েছে এদেশের মানুষের। সমীক্ষা বলছে, এদেশে বেশিরভাগ মহিলাদের নাকি অর্গ্য়াজম (orgasm) সম্পর্কে কোনও পরিষ্কার ধারণা নেই। তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভারতে সঙ্গম ব্যাপারটা পুরুষদের হাতে নিয়ন্ত্রিত হয়।

[আরও পড়ুন: কন্ডোমের বদলে যৌনাঙ্গে আঠা! উদ্দাম যৌনতার পরই প্রাণ হারালেন যুবক]

 

সমীক্ষা থেকে পাওয়া গিয়েছে আরেক চমকে ওঠার মতো তথ্য। নরওয়েতে নাকি পুরুষদের তুলনায় মহিলারাই সঙ্গমের ব্য়াপারে খোলাখুলি মতপোষণ করে। অন্যদিকে, আমেরিকা ও ইংল্যান্ডে সেক্স নিয়ে কোনওধরনের ট্যাবু নেই। বরং ওদেশে পুরুষ মহিলারা যৌনতায় এক্সপেরিমেন্ট করতেই বেশি পছন্দ করেন। অনেকেই একই সময়ে একাধিক সম্পর্কে যুক্ত থাকেন।

সমীক্ষায় এসেছে ব্রাজিলের ৮৮ শতাংশ মহিলারা নাকি অর্গ্য়াজম না হওয়ার কথা একেবারেই গোপন রাখেন। ইটালির মানুষেরা আবার সঙ্গমের তুলনায় ওরাল সেক্সকেই বেশি পছন্দ করেন।

[আরও পড়ুন: সঙ্গমের পরে শরীরে আদরের দাগ? লজ্জা না পেয়ে ঢেকে ফেলুন এই ৫ উপায়ে]

Advertisement
Next