‘সবসময় সঙ্গম করতে চায়’, স্বামীর চাহিদায় দিশেহারা স্ত্রী গেলেন আদালতে

02:05 PM Jan 12, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বামী বেহেড মাতাল। মদ পেটে পরলেই মাথায় কামদেব ভর করে! তার যৌন চাহিদা অতিমাত্রায় বেড়ে যায়। আর স্বামীর চাহিদা মেটাতে মৃতপ্রায় দশা স্ত্রীর। এই অভিযোগে বিবাহ বিচ্ছেদ চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হলেন নাইজেরিয়ার (Nigeria Woman) এক মহিলা। অভিযোগ, স্বামী রোজই যৌনতায় লিপ্ত হতে চায়। এর জন্য তাঁকে জোর করা হয়। গত ১৪ বছর ধরে এই অত্যাচার সহ্য করতে করতে তিনি ক্লান্ত। এবার মুক্তি চান।

Advertisement

নাইজেরিয়ার সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, মহিলার নাম ওলামাইড লাওয়েল। গত ১৪ বছর ধরে পেশায় ফ্যাশন ডিজাইনার সাহেদ লাওয়ালের সঙ্গে বিবাহিত। দুজনের তিন সন্তানও আছে। গত ৭ জানুয়ারি আদালকে ওলামাইড অভিযোগ করেন, সাহেদ অতিরিক্ত মদ্যপান (Drunk) করেন। বিয়ার পেটে পরলেই তার যৌন চাহিদা অতিরিক্ত মাত্রায় বেড়ে যায়। জোর করে যৌনতায় লিপ্ত হতে চায়। এরকম চলতে থাকলে তিনি মারা যাবেন বলে দাবি করেছেন ওলামাইড। তাই বিবাহ বিচ্ছেদ চেয়েছেন তিনি।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: সাবধান! কলকাতায় ফাঁদ পাতছে হায়দরাবাদ গ্যাং, অ্যাপ ডাউনলোড করতেই সাফ অ্যাকাউন্টের কোটি টাকা]

ওলামাইড আরও জানিয়েছেন, স্বামীর হাত থেকে বাঁচতে তিন সন্তানকে নিয়ে আলাদা ফ্ল্যাটে থাকছেন তিনি। সেখানে যাতে সাহেদ না আসে তার জন্য নির্দেশ দিতে আরজি জানিয়েছে আদালতে। একইসঙ্গে ওলামাইডের আরও অভিযোগ, সাহেদ পরিবারের কোনও খরচ-খরচা দেয় না। পরের কাছে হাত পেতে সংসার চালাতে হয় তাঁকে।

Advertising
Advertising

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে অভিযুক্ত সাহেদ। তাঁর কথায়, “এখন আমি মদ্যপান বন্ধ করে দিয়েছি। আমি আমার সন্তানদের দেখাশোনা করতে প্রস্তুত।” এদিকে এ মামলার বিচারক এস.এম. আকন্তায়ো মামলার শুনানি ১ মার্চ পর্যন্ত পিছিয়ে দিয়েছেন। দুজনকে শান্তিতে বিষয়টি মিটিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: যৌনতার একঘেয়েমি কাটাতে প্রতি রাতে সঙ্গী বদল, নিজের স্ত্রীকে পাঠাতেন বন্ধুর কাছে, তারপর…]

Advertisement
Next