Advertisement

খড়দহে প্রয়াত কাজল সিনহার বাড়িতে BJP প্রার্থী, আশীর্বাদ করে বিতর্কে বিধায়কপত্নী

03:50 PM Oct 17, 2021 |

অর্ণব দাস, বারাকপুর: হাতে মাত্র আর কয়েকদিন। চলতি মাসের ৩০ তারিখ খড়দহ আসনে নির্বাচন। তাই পুজো মিটতেই প্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন প্রার্থীরা। রবিবার প্রচারে বেরিয়ে বিজেপি প্রার্থী পৌঁছে গেলেন প্রয়াত তৃণমূল বিধায়ক কাজল সিনহার বাড়িতে। আশীর্বাদ নিলেন তাঁর স্ত্রীর।

Advertisement

রবিবার সকালে নিজের এলাকায় প্রচারে বের হন বিজেপি প্রার্থী জয় সাহা। প্রথমেই হাজির হন কাজল সিনহার বাড়িতে। মাল্যদান করেন প্রয়াত তৃণমূল নেতার ছবিতে। প্রণাম করেন কাজল সিনহার স্ত্রী নন্দিতাকে। সৌজন্য বিনিময় করেন। নন্দিতাদেবী আশীর্বাদ করেন বিজেপি প্রার্থী জয়কে। বিজেপি প্রার্থীর কথায়, “কাজল সিনহার স্বপ্ন পূরণ করতেই হবে। সেই অঙ্গীকার করতেই আশীর্বাদ প্রার্থনা করলাম।”

[আরও পড়ুন:উপনির্বাচনের পরই বিজেপির নয়া কমিটি, পদাধিকারী তালিকায় আসতে পারে নতুন মুখ ]

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। বিজেপি প্রার্থীর সঙ্গে সৌজন্য বিনিময় ও তাঁকে আশীর্বাদ করা মোটেও স্বাভাবিকভাবে নেননি তৃণমূল প্রার্থী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, “সুস্থতা কামনা করতেই পারেন, কিন্তু কোনওভাবেই জয়ী হওয়ার আশীর্বাদ করতে পারেন না।”

বহুদিন ধরে তৃণমূলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন কাজল সিনহা। মূলত সংগঠনের দায়িত্ব ছিল তাঁর কাঁধে। চলতি বছর বিধানসভা নির্বাচনে খড়দহ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন তিনি। ষষ্ঠদফা ভোটের আগের দিন সকালে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন খড়দহের তৃণমূল প্রার্থী (TMC Candidate)। সেদিনই বেলেঘাটা আইডিতে ভরতি করা হয়েছিল তাঁকে। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে আইসিইউতে রাখা হয়। টানা তিনদিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। সেই কারণেই এবার ওই আসনে উপনির্বাচন। এবার তৃণমূলের হয়ে লড়াই করছেন রাজ্যের মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: ‘কামারহাটির মেঘনার মাঠে প্রোমোটিং করলে পাঞ্জা কেটে নেব’, হুঁশিয়ারি মদন মিত্রর]

Advertisement
Next