‘জেলা ভাগ লেডি বিন তুঘলকের খামখেয়ালি সিদ্ধান্ত’, মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ সুকান্তর, পালটা তৃণমূলের

03:50 PM Aug 04, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সদ্যই ৭ টি নতুন জেলা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সেই জেলা ভাগের সিদ্ধান্ত নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নজিরবিহীনভাবে কটাক্ষ করলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। মমতাকে লেডি বিন তুঘলক বলে কটাক্ষ করলেন তিনি।

Advertisement

বিষয়টা ঠিক কী? বৃহস্পতিবার জেলাভাগ প্রসঙ্গে টুইট করেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumder)। তিনি লেখেন, “স্থানীয়দের আবেগকে গুরুত্ব না দিয়ে ৭ টি নতুন জেলা তৈরি করা লেডি বিন তুঘলকের  খামখেয়ালি সিদ্ধান্ত। এটা অত্যাচারী শাসনের উদাহরণ।” সুকান্ত মজুমদার আরও লেখেন, “পশ্চিমবঙ্গ এমনিতেই ঋণের বোঝায় জর্জরিত। তার মাঝে এই জেলা বাড়ানোয় ঋণের বোঝাও বাড়বে। দুর্নীতির বিকেন্দ্রীকরণের নতুন রাস্তা খুলবে।” সুকান্ত মজুমদারের এই টুইট ঘিরে স্বাভাবিকভাবেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক।

[আরও পড়ুন: দেশজুড়ে মাঙ্কিপক্স আতঙ্কের মধ্যে সতর্ক রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর, হাসপাতালগুলিকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ]

 

Advertising
Advertising

রাজ্য বিজেপির সভাপতির মন্তব্যের পালটা দিয়েছে তৃণমূল। রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন বলেন, “বাংলার উন্নয়নের কাজ ত্বরান্বিত করতে মুখ্যমন্ত্রী জেলা ভাগ করেছেন। বিজেপির সেটাতে তুলঘলকি আচরণ মনে হচ্ছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।” জেলা ভাগ যদি তুঘলকি আচরণ হয়ে থাকে, তাহলে জিএসটি লাগু, নোটবন্দি এগুলি তুঘলকি আচরণ নয়? পালটা প্রশ্ন তুললেন শান্তনু সেন।

প্রসঙ্গত, সদ্যই বাংলার মানচিত্রে যুক্ত হয়েছে আরও সাতটি নতুন জেলা। গত সোমবার নবান্নে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নতুন জেলাগুলি হল বহরমপুর, কান্দি, সুন্দরবন, বসিরহাট, ইছামতী, রানাঘাট, বিষ্ণুপুর।

[আরও পড়ুন: দুঃসাহসিক ডাকাতি অশোক নগরে, সিভিক ভলান্টিয়ারদের বেঁধে রেখে দু’টি সোনার দোকানে লুট]

Advertisement
Next