Advertisement

‘সর্দার উধম’ব্রিটিশ বিরোধী ছবি! অস্কার বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন পরিচালক সুজিত সরকার

08:15 PM Oct 27, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত থেকে অস্কারের (Oscar) দৌড়ে কোন ছবি যাবে. তা নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরেই জল্পনা চলছিল। কলকাতারই এক প্রেক্ষাগৃহে বাছাই পর্ব চলছিল এ ব্যাপারে। গোটা দেশ থেকে প্রায় ১৪টি ছবিকে শর্ট লিস্ট করা হয়েছিল। যার মধ্যে এগিয়ে ছিল পরিচালক সুজিত সরকারের ‘সর্দার উধম’ (Sardar Udham)। ইতিমধ্য়েই সুজিতের এই ছবি দারুণ প্রশংসা কুড়িয়েছে দর্শকদের। তাই অনেকেই মনে করেছিলেন ভিকি কৌশল অভিনীত এই ছবি অস্কারে যাওয়ার জন্য একেবারে সঠিক বাছাই। কিন্তু বাছাই পর্ব শেষ হতেই আশাহত অনেকেই। ‘সর্দার উধম’ শেষমেশ হেরে গেল অস্কারের দৌড়ে। বরং তার পরিবর্তে তামিল ছবি ‘কুঝাঙ্গাল’ই এবার ভারত থেকে অস্কারে লড়বে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘দেশের মাটি’র সফর শেষ, শুটিং ফ্লোরে কান্নায় ভাসলেন রাহুল-রুকমারা]

ঠিক কী কারণে অস্কারের দৌড়ে ‘সর্দার উধম’ পিছিয়ে পড়ল? সম্প্রতি এক সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বাংলা ছবির পরিচালক ও অন্যতম জুড়ি মেম্বার ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত বলেন, ”সর্দার উধম ছবিতে ব্রিটিশদের প্রতি বিদ্বেষ দেখানো হয়েছে। যা এই বিশ্বায়নের যুগে মোটেও ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নয়। এছাড়াও, ছবিটা খুবই দীর্ঘ। জালিয়ানওয়ালাবাগের অংশ দীর্ঘ করে দেখানো হয়েছে। তবে হ্য়াঁ, এই ছবির সিনেম্য়াটোগ্রাফি সত্যিই আন্তর্জাতিক মানের।” পরিচালর ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তর এই মন্তব্য নিয়েই তোলপাড় শুরু হয়ে গেল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সুজিত সরকার পরিচালিত সর্দার উধম যাঁরা দেখেছেন, তাঁদের অনেকেরই মত, ইন্দ্রদীপের যুক্তি একেবারেই সঠিক নয়।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

তবে এই নিয়ে প্রথমে কোনও মন্তব্য করতে না চাইলেও, সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে পরিচালক সুজিত সরকার জানিয়েছেন, ‘সর্দার উধম ছবি অস্কারে না পাঠানোর জন্য যে ধরনের কারণ সামনে এসেছে, তা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। এটা একেবারেই বিচারকদের ব্যক্তিগত মতামত এবং সিদ্ধান্ত। আর আমি এই সিদ্ধান্তকে সম্মান করি।’ পরিচালক সুজিত আরও জানিয়েছেন, ‘তামিল ছবি কুঝাঙ্গাল সম্পর্কে আমি জানি এবং এই ছবি অস্কারের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে, তাতে আমি সত্য়িই খুব খুশি। বিচারকদের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে আমি একমত।’

[আরও পড়ুন: বুধবারও শেষ হল না জামিন মামলার শুনানি, জেলেই থাকতে হচ্ছে আরিয়ানকে]

 

Advertisement
Next