‘হিটলার মাসিমা বলেছেন মানেই সিনেমা হিট’, ‘রক্তবীজ’ ছবির শুটিংয়ে অনসূয়ার সঙ্গে খুনসুটি শিবপ্রসাদের

07:49 PM Sep 18, 2023 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নন্দিতা রায় ও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্য়ায়ের ছবি মানেই বক্স অফিসে ধামাকা। টলিপাড়ায় তো তাঁদের নতুন নাম ব্লকবাস্টার পরিচালক জুটি। কিন্তু জানেন কি? তাঁদের ছবি হিট করানোর পিছনে রয়েছে এক টোটকা! হ্য়াঁ, সেই গোপন টোটকার কথাই এবার ফাঁস করলেন অভিনেত্রী অনসূয়া মজুমদার।

Advertisement

ব্যাপারটা একটু খোলসা করে বলা যাক। গোত্র ছবির হিটলার মাসিমা, মুখার্জি দার বউয়ের শোভারানী মুখার্জী ওরফে অভিনেত্রী অনসূয়া, নন্দিতা ও শিবপ্রসাদের ছবিতে ফিরছেন একেবারে নতুন রূপে। এই পরিচালক জুটির “রক্তবীজ”-এ এক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা যাবে অভিনেত্রীকে।

Advertising
Advertising

অনসূয়া মজুমদারে কথা প্রসঙ্গে পরিচালক শিবপ্রসাদ জানান, “ছবিতে অনসূয়াদি আছেন মানেই সেই ছবি সুপারহিট, গোত্র থেকে মুখার্জি দার বউ দুটোতেই আমাদের সঙ্গে ছিলেন অনসূয়াদি। এইবার আমরা আবারও তাকে পেলাম “রক্তবীজ”-এ। আসল কথা হল, মাসিমা আছেন তো কোন কথা হবে না!”

[আরও পড়ুন: ‘সত্যিকারের হিন্দু হলে…’, মন্দিরে কালীপুজোর ছবি দিতেই খোঁচা খেলেন মিমি!]

ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে অনুসূয়া মজুমদারের ‘রক্তবীজ’ ছবির জন্য ডাবিং। তাঁর কথায়, ”উইন্ডোজ এর সঙ্গে কাজ করা যেন মনে হয় নিজের বাড়ি ফেরা। নন্দিতা এবং শিবুর থেকে যে ভালোবাসা এবং যে আপ্যায়ন আমি পাই তাতে আমি প্রতি মুহূর্তে মুগ্ধ হয়ে যাই। ভিক্টরদার সাথে প্রায় ৩২ বছর পর আবার সেই ভাই বোনের ভূমিকায় অভিনয় করতে পেরে নিজেকে সত্যি ভাগ্যবান মনে হয়। এত সাবলীল একজন অভিনেতার সঙ্গে অভিনয় করাটাও স্বপ্ন পূরণের থেকে কম নয়।”

অনসূয়া মজুমদারের কথায়, “শটের ফাঁকে ফাঁকে যখন অবসর সময় বসে থাকতাম এবং পরের দৃশযের সংলাপগুলো নিয়ে ভাবতাম, শিবু ঠিক আমার চেয়ারের পাশে বসে আমাকে প্রত্যেকটি সংলাপ এবং পরের দৃশ্যটি নিজের হাতে বুঝিয়ে দিত। অনেক সময় আমার ভ্যানিটি ভ্যানে এসেও বুঝিয়েছিল এবং নন্দিতা আমার কাঁধে হাত রেখে বলতো আগের দৃশ্যের অভিনয় খুব ভালো হয়েছে। এই মাটির সঙ্গে ছুঁয়ে থাকার মানসিকতাই বোধহয় আজ তাঁদেরকে সাফল্যের পথ দেখিয়েছে। এই ছোট্ট ছোট্ট কথাগুলো ভালো কাজ করার জন্য এবং আরও একাগ্রতা দিয়ে কাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার এক স্পৃহা দেয়। শুটিং চলাকালীন আমার একবারও মনে হয়নি যেন আমি কোন এক লোকেশনে এসে শুট করছি। যেন বারবার মনে হয়েছে নিজের মানুষগুলোর সঙ্গে বসে জমিয়ে আড্ডা দিচ্ছি এবং এই আড্ডার ফাঁকে ফাঁকেই শুটিং হয়ে যাচ্ছে।”

তিনি আরও বলেন,” এই ছবিতে রয়েছে আরও দুর্দান্ত অভিনেতারা। যাঁরা আপনাদের চেনা কিন্তু এক অন্য রূপে আসতে চলেছে আপনাদের সবার কাছে। শুটিংয়ের এই কয়েকদিন যেন মনে হল পুজোর ছুটি কাটালাম, প্রথম দিন থেকেই হইহই করে আমরা একসঙ্গে শুটিং করলাম তার মধ্যে ছিল নানান ইয়ার্কি আড্ডা গল্প এবং ছিল কাজের প্রতি একাগ্রতা। আমার বিশ্বাস নন্দিতা এবং শিবু দর্শকের জন্য এক অভূতপূর্ব পুজোর উপহার নিয়ে আসছে এই পুজোয়। আমার কাজ করে দারুণ আনন্দ হয়েছে এবং আমার বিশ্বাস এই পুজোয় আমাদের সবার মিলিত পরিশ্রম দর্শকদের ভালো লাগবে। আমাদের সবাইকে দেবে।”

[আরও পড়ুন: ‘ছেলে বলেই কি সব মেনে নিতে হবে?’ যৌন দৃশ্যে প্রবল আপত্তি আলি ফজলের]

Advertisement
Next