Advertisement

শিখদের ‘অপমানে’র জের, কঙ্গনাকে সমন দিল্লি বিধানসভার, কী প্রতিক্রিয়া অভিনেত্রীর?

03:31 PM Nov 25, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কৃষক আন্দোলনকে খালিস্তানি (Khalistani) বিক্ষোভের সঙ্গে তুলনা করায় মুম্বইয়ে (Mumbai) তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছিল এফআইআর (FIR)। এবার শিখদের নিয়ে মন্তব্যের অভিযোগে বলি অভিনেত্রী ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’ কঙ্গনা রানাওয়াতের (Kangana Ranaut) বিরুদ্ধে সমন পাঠাল দিল্লি বিধানসভার (Delhi Assembly) শান্তি কমিটি। এদিকে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে যে মোটেই পাত্তা দিচ্ছেন না, বৃহস্পতিবারই  ইনস্টাগ্রামের একটি পোস্টে সেকথা বুঝিয়ে দিলেন কঙ্গনা। লিখলেন তিনি বাড়িতে সুখেই সময় কাটাচ্ছেন।   

Advertisement

বৃহস্পতিবার শিখদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্যের জেরে কঙ্গনার নামে সমন বের করে দিল্লি বিধানসভার শান্তি ও সম্প্রীতি কমিটি (Delhi Assembly’s Peace and Harmony Committee)। কঙ্গনাকে আগামী ৬ ডিসেম্বর দুপুর ১২টার মধ্যে কমিটির সামনে হাজিরা দিয়ে জবাবদিহি করতে বলা হয়েছে, জানিয়েছেন দিল্লি বিধানসভার শান্তি ও সম্প্রীতি কমিটির চেয়ারম্যান দিল্লির সাংসদ রাঘব চাড্ডা।

[আরও পড়ুন: ত্রিপুরায় আরও ২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠাতে হবে, পুরভোটের মাঝেই নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

গুরু নানকের জন্মদিনে বড় ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Modi)। বিতর্কিত তিন কৃষি আইন (Farm Law) প্রত্যাহার করার কথা জানান তিনি। যার ফলে সাফল্য পায় কৃষকদের দীর্ঘদিনের আন্দোলন। এই সিদ্ধান্তকে মানতে পারেননি কঙ্গনা। অভিনেত্রী ইনস্টাগ্রামে জানান, “দুঃখজনক, লজ্জাজনক ও সম্পূর্ণ অন্যায়। সংসদে নির্বাচিত সরকারের পরিবর্তে যদি রাস্তায় বসে থাকা লোকেরাই আইন বানাতে শুরু করে, তাহলে মানতেই হবে এটা একটা জেহাদি দেশ।” এরপরই কটাক্ষ করে তিনি লেখেন, “তাঁদের সকলকে অভিনন্দন যাঁরা এটা চেয়েছিলেন।”

 

এখানেই শেষ নয়, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে কৃষকদের প্রতিবাদ আন্দোলনকে খালিস্তানি আন্দোলনের সঙ্গে তুলনা করতেও ছাড়েননি তিনি। পরে ইন্দিরা গান্ধীকে নিয়ে একটি পোস্টে খালিস্তানিদের তুলোধোনা করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। নাম করে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর প্রশংসা করে লেখেন, “তিনি খালিস্তানি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের গুঁড়িয়ে দিয়েছিলেন।” যোগ করেন, “খালিস্তানি জঙ্গিরা আজ ফের মাথা তুলতে শুরু করেছে। কিন্তু একজন মহিলাকে ভুলে গেলে চলবে না। তিনি একমাত্র মহিলা প্রধানমন্ত্রী… জিস নে ইনকো আপনি জুতি কে নিচে কুচল দিয়া থা।” কঙ্গনা আরও লেখেন, “এক যুগ পরেও তাঁর নামে কাঁপে ওঁরা (খালিস্তানিরা)… সেই ভয় কাটাতে ওঁদের একজন গুরুর প্রয়োজন।”

[আরও পড়ুন: চিন-পাকিস্তানকে কড়া টক্করের প্রস্তুতি, নৌসেনার অন্তর্ভুক্ত সাবমেরিন INS Vela]

এমন মন্তব্যের পর মুম্বইয়ে শিখ সম্প্রদায়ের এক ব্যক্তি অমরজিৎ সান্ধু কঙ্গনার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তাঁর অভিযোগ, শিখদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছেন কঙ্গনা। দিল্লির শিখ গুরুদ্বার কমিটিও কঙ্গনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানায় রাজধানীর অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনারের কাছে। পদ্ম পুরস্কার কেড়ে নেওয়ার আবেদনও জানানো হয়। এরপর আজ দিল্লি বিধানসভার শান্তি ও সম্প্রীতি কমিটি একই অভিযোগে কঙ্গনা রানওয়াতের বিরুদ্ধে সমন পাঠাল।

যদিও কঙ্গনা তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে পাত্তা দিতে রাজি নন। বৃহস্পতিবার ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি খোলামেলা ছবি পোস্ট করেন অভিনেত্রী। ছবির নিচের অংশে ছবির ক্যাপশন লেখেন। ক্যাপশনটি এরকম- “একটা নতুন দিন, একটা নতুন এফআইআর। …যদি ওরা আমাকে গ্রেপ্তার করতে আসেও… আমি কিন্তু বাড়িতে দারুণ সময় কাটাচ্ছি।”  

Advertisement
Next